হয়রানির শিকার ১১৫ দেশ ভ্রমণকারী কাজী আসমা আজমেরী

37

কামরুজ্জামান হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র:

পৃথিবীর ১১৫টি দেশ ভ্রমণকারী খুলনার মেয়ে কাজী আসমা আজমেরী হয়রানির শিকার হয়েছেন। গতকাল ঢাকা থেকে ফার্নিচার কিনে খুলনার বাসায় যাওয়ার পরপরই এ ঘটনা ঘটে। এলাকার কিছু উচ্ছৃঙ্খল ছেলে তার বাসায় গিয়ে হয়রানি করে। আসমা আজমেরী সবুজ সিলেটকে জানান, গতকাল দুপুরের দিকে এলাকার কিছু উচ্ছৃঙ্খল ছেলে তার বাসায় গিয়ে বলেন, ‘ঢাকা থেকে এতো টাকার ফার্নিচার নিয়ে এসেছেন, করোনাভাইরাস নিয়ে এসেছেন; এখন আমাদের কিছু-মিছু দেন।’ এরপর তার বাবা সেই ছেলেদের বাসা থেকে বের করে দেন। কাজী আসমা বলেন, ওই দিনই বিকেলে আমার বাড়িতে কয়েকজন পুলিশ সদস্য আসেন। আমি কবে বিদেশ থেকে ফিরেছি সেটা জানতে চান। আমি আমার পাসপোর্ট ভিসার সিল দেখিয়ে দিয়েছি। তারা ফিরে গেছেন। তিনি আরও বলেন, এরপরই একটি অনলাইন গণমাধ্যমে আমাকে নিয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করা হয়। সেখানে বলা হয়, আমি নাকি হোম কোয়ারেন্টিন মানি নাই। অথচ আমি সর্বশেষ কলকাতা থেকে দেশে ফিরেছি ২৫ ফেব্রুয়ারি। থানায় জিডি করেছেন কি না প্রশ্ন করলে আসমা আজমেরী জানান, না। তারা তো স্পেসিফিকভাবে কিছু চায়নি। বলেছে ‘কিছু’ দেন। প্রয়োজন হলে জিডি করা হবে বলেও তিনি জানান। আসমা আজমেরী দেশে ফিরেছেন ২৯ দিন আগে। তিনি হোম কোয়ারেন্টিন মানেননি এমন অভিযোগ করা হচ্ছে। এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (উন্নয়ন) ডা. ইকবাল কবীর বলেন, বিদেশফেরত জনিত কোয়ারেন্টিন তার জন্য প্রযোজ্য হবে না; যিনি ২৯ দিন আগে দেশে এসেছেন। এখন যদি তিনি করোনায় আক্রান্ত হন তাহলে সেটি স্থানীয় কারোর সংস্পর্শে এসে হয়েছেন বলে বিবেচিত হবে।