এই প্রথম ভার্চুয়ালে এসএসসির ফল, মোবাইলেও মিলবে যেভাবে

14

সবুজ সিলেট ডেস্ক::
করোনা মহামারীর মধ্যে রোববার এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে। সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল প্রকাশ করবেন। পরে দুপুর ১২টায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ফেসবুক লাইভে ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন।এবারই প্রথম ভার্চুয়াল মাধ্যমে ফল জানানো হচ্ছে। তাই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ফল জানানো হবে না। করোনার কারণে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে এ ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার। তবে পরীক্ষার্থীরা নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট, সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইট, ঢাকা বোর্ডের কেন্দ্রীয় ওয়েবসাইট এবং এসএমএসে ফল জানতে পারবে।
এসএমএসে দু’ভাবে ফল জানানোর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। একটি হচ্ছে, ফল প্রকাশের পর নির্ধারিত পদ্ধতিতে এসএমএস করলে ফিরতি এসএমএসে ফল চলে যাবে। এই পদ্ধতিতে অনেক সময় শিক্ষার্থীরা ঝক্কিতে পড়ে বলে অভিযোগ আছে। এ কারণে এবার ফল প্রকাশের পরই স্বয়ংক্রিয়ভাবে এসএমএসে শিক্ষার্থীর বাসায় মোবাইল ফোনে তা (পরীক্ষার ফল) পৌঁছানোর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে ছাত্রছাত্রীদের রোলনম্বর প্রাক-নিবন্ধন করতে বলা হয়। শনিবার দুপুর ২টা পর্যন্ত এই কার্যক্রম অব্যাহত ছিল।
করোনা পরিস্থিতিতে এসএসসির পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হচ্ছে জানিয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এ বছর এসএসসি পরীক্ষার ফল অনলাইনে প্রকাশিত হবে। পরীক্ষা কেন্দ্র কিংবা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কোনো ফল পাঠানো হবে না। কাজেই কোনো অবস্থাতেই ফল প্রকাশের দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জমায়েত হওয়া যাবে না।
এছাড়া নিজ নিজ শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও ফল জানা যাবে। ফল প্রকাশের দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর অফিস বন্ধ রাখতে বোর্ডগুলোর পক্ষ থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের প্রধান সিস্টেম এনালিস্ট প্রকৌশলী মনজুরুল কবীর যুগান্তরকে বলেছিলেন, যারা প্রাক-নিবন্ধন করবে ফলাফল প্রকাশের পর তাদের দেয়া মোবাইল নম্বরে সার্ভার থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে জিপিএ গ্রেডসহ ফল পৌঁছে যাবে। তবে প্রাক-নিবন্ধন না করলেও কোনো উদ্বেগ নেই। এবারও আগের মতো অনলাইনে বা ওয়েবসাইট ও টেলিটকে এসএমএস করে ফল জানার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। ঢাকা বোর্ডের শিক্ষা বোর্ডের কেন্দ্রীয় ওয়েবসাইটে এবং পরীক্ষার্থীর স্ব স্ব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকেও ফল পাওয়া যাবে।
উল্লেখ্য, গত ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা শেষে ৬০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশের রেওয়াজ আছে। সেই হিসেবে চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে ফল প্রকাশের কথা ছিল। কিন্তু করোনা সংক্রমণের কারণে ফল তৈরির কাজ বন্ধ ছিল।