২য় দিনের মতো উত্তাল ডেট্রয়েট ফের বিক্ষোভকারী-পুলিশ সংঘর্ষ গ্রেফতার ৫

8

কামরুজ্জামান হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র:

শনিবার দ্বিতীয় দিনের মতো ডেট্রয়েটে বিক্ষোভকারীদের সাথে সংঘর্ষ হয়েছে পুলিশের। পুলিশের উপর আতশবাজি, ইট, পাথর ও পানির বোতল নিক্ষেপকে কেন্দ্র করে টিয়ার গ্যাসের শেল ছুড়ে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ ৫ জনকে আটক করেছে। মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপোলিস শহরে পুলিশের হেফাজতে জর্জ ফ্লয়েড নামে এক আফ্রিকান আমেরিকান নাগরিককে হত্যার প্রতিবাদে দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভে উত্তাল ছিল ডেট্রয়েট। বিকেল ৫টার দিকে ডেট্রয়েটের কর্কটাউন থেকে বহু মানুষ হাতে প্ল্যাকার্ড, পোষ্টার নিয়ে রাস্তায় নামে। বিক্ষোভকারীরা বিভিন্ন সড়কে শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ করে। এক পর্যায়ে ১-৩৭৫ মহাসড়কও কিছু সময়ের জন্য অবরোধ করে রাখে এরা। টানা ৫ ঘন্টা শহরের বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শনের পর মিছিলটি রাত প্রায় ১০ টার দিকে ডেট্রয়েট পাবলিক সেফটি হেডকোয়ার্টারের সামনে এসে পৌছে। এবং বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। এ সময় পুলিশ সমাবেশকে বেআইনী ঘোষণা করে সকলকে ঘটনাস্থল ছেড়ে যেতে অনুরোধ জানায়।

কিন্তু প্রতিবাদকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট, পাথর, পানির বোতল এবং আতশবাজি নিক্ষেপ শুরু করে। এতে পুলিশের একটি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এ অবস্থায় পুলিশ টিয়ার গ্যাসের শেল ছুড়ে প্রতিবাদকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পুলিশ কমপক্ষে ৫ প্রতিবাদীকে গ্রেফতার করেছে। এদিকে ডেট্রয়েট থানার ভারপ্রাপ্ত প্রধান জেমস ক্রেগ শনিবার রাতে বলেছেন, পুলিশের উপর নিক্ষেপিত বস্তুগুলিতে ছোট্ট ইট, এম-৮০ আতশবাজি এবং শিলা অন্তর্ভুক্ত ছিল। তিনি বলেন, পুলিশ একটি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। কিছু পোর্টেবল টয়লেট উল্টে গিয়েছে। ক্রেগ বলেন, “আমরা বিক্ষোভকে সমর্থন করি।” “আমরা আইন ভঙ্গকারীদের সমর্থন করি না।” পুলিশ রাত সাড়ে দশটার দিকে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ শুরু করে। এতে জনতা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। তিনি জানিয়েছেন, পাঁচ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং তাদের কোনও আপত্তিজনক আঘাত নেই। তিনি বলেন, নিরাপত্তায় নিয়োজিত কর্মকর্তাদের জন্য যখন হুমকি দেওয়া হয়েছিল, তখন টিয়ার গ্যাস ব্যবহার করা ছাড়া পুলিশের “আর কোন উপায় ছিল না”।