যুক্তরাষ্ট্র নিউইয়র্কে পালিত হলো সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী

5

কামরুজ্জামান হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র:

মঙ্গলবার বিকাল ৫ ঘটিকায় জ্যাকসন হাইটস খামার বাড়ীর সামনে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সফল রাষ্ট্রপতি, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, গ্রাম বাংলা উন্নয়নের মহানায়ক হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ এর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উদ্যাপন করা হয়। জাতীয় পার্টির যুক্তরাষ্ট্র শাখার সকল নেতৃবৃন্দ উপস্তিত থেকে পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানানো হয়। করোনাকালীন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল এবং সংক্ষেপে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মিলাদ ও দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন মুফতী মুহাম্মদ ইসমাঈল। দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে জাতীয় পার্টি যুক্তরাষ্ট্র শাখার নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্তিত ছিলেন জাতীয় পার্টির সভাপতি হাজী আবদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আবু তালেব চৌধুরী চান্দু, সাবেক সংসদ সদস্য লিয়াকত আলী, জাপার সিনিয়র উপদেষ্টা সৈয়দ শওকত আলী, জাপার উপদেষ্টা গিয়াস মজুমদার, জাপার সিনিয়র সহ সভাপতি জসিম উদ্দিন চৌধুরী, জাপার সিনিয়র সহ সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য আলহাজ্ব এডভোকেট হারিস আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসিফ বারী টুটুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় সদস্য মোঃ লুৎফুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবদুল করিম, নিউইয়র্ক সিটি জাপার সভাপতি শুভংকর গাঙ্গুলী, জাপার যুব বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মোতালেব, জাপার ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মুসলিম প্রমুখ। আজ জাতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ সাহেবের অভাব অনুভব করছে। বাংলাদেশের জনগণের ভাগ্য উন্নয়নে রাজনীতি করেছিলেন। গ্রাম বাংলার উন্নয়নের মহানায়ক এর নাম ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে। বড় দুঃখের বিষয় বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ এরশাদ একজন উদাহারন, তাহার প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী ১৪ই জুলাই। নির্বাচন কমিশন ২টি উপ নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে নেতাকে অসম্মান করেন। উপস্তিত সকল নেতৃবৃন্দ পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ সাহেবের মাগফেরাত কামনা করে, আল্লাহ যেন উনাকে জান্নাতবাসী করেন সেজন্য দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এর পর পরই তবারক বিতরণ করা হয়।