ক্যারিবীয় লিগে খেলতে যেতে রাজি হননি মোস্তাফিজ

6

খেলা ডেস্ক::
তামিম ইকবাল আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) থেকে লোভনীয় প্রস্তাব পেয়েছিলেন। কিন্তু করোনার এই সময়ে তাদের পরিবার ঝুঁকি নিতে রাজি নয়। তাই তারা ‘না’ বলে দিয়েছেন।

প্রস্তাব পেয়ে ‘না’ বলে দিয়েছেন জাতীয় দলের তারকা পেসার মোস্তাফিজুর রহমানও। তামিম আর মাহমুদউল্লাহর মতো তারও করোনা শঙ্কা আছে। করোনাকালীন সময়ে খেলতে গেলে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যেতে হবে, এমন ভাবনা কাটার মাস্টারেরও। তবে তার সিপিএল খেলতে না যাওয়ার মূল কারণ ভিন্ন।

মোস্তাফিজের সঙ্গে সিপিএলের কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজির সরাসরি কথা হয়নি। যোগাযোগ হয়েছে এজেন্টের মাধ্যমে। অফার ছিল মোটা অংকের। তবে লোভনীয় প্রস্তাবেও টলেননি মোস্তাফিজ।  জানালেন, মূলত দেশের কথা ভেবেই সিপিএলে যেতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন তিনি।

আজ বিকেলে সিপিএল খেলার অফার ফিরিয়ে দেয়ার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে মোস্তাফিজ জানান, ‘করোনার সময়ে খেলতে যাওয়া মানেই জীবনের ঝুুঁকি নেয়া। তবে আমি আরও বড় কারণে তাদের সাথে সেভাবে কথা বলিনি। জানি না আবার কবে আমাদের দেশের ঘরোয়া ও জাতীয় দলের ক্রিকেট শুরু হবে। তবে এটুকু জানি আমাদের বেশ কয়েকটি সিরিজ ও সফর করোনার কারণে বন্ধ হয়ে গেছে।’

মোস্তাফিজ যোগ করেন, ‘করোনার তীব্রতা ও ভয়াবহতা কমে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার ঐ স্থগিত সফর বা হোম সিরিজ শুরু হতে পারে। এখন আমি তো জানি না, সেটা কবে। তা না জেনে যদি আমি সিপিএলে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ হই, তাহলে তো একটা বড় ঝামেলা হয়ে যেতে পারে। দেখা গেল সিপিএলে আমার দলের যখন খেলা থাকবে, ঠিক একই সময়ে আমার জাতীয় দলেরও খেলা পড়ে গেল। তখন কি করবো?’

সবার আগে দেশের চিন্তাই করছেন মোস্তাফিজ। তার ভাষায়, ‘আমার দেশ তো আগে। দেশের হয়েই খেলতে হবে। কিন্তু সিপিএলের দলকে যদি কথা দিয়ে ফেলি, তখন তো তাদেরও একটা সমস্যা হবে। আমার সাথে চুক্তি করে যদি আমাকে জায়গামত না পায় তারাও তো বিপাকে পড়ে যাবে। তাই না করে দিয়েছি। এখন জাতীয় দলের অনুশীলন কবে শুরু হয়, সে অপেক্ষায়ই আছি।’