এক ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে ডুবে গেল আরেকজনও

15

শারীরিক প্রতিবন্ধী বড় ভাইকে পানি থেকে উদ্ধার করতে গিয়ে ছোট ভাইও ডুবে মারা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে আজ সোমবার বিকেল সাড় পাঁচটায় হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার জাহিদপুর গ্রামে। এ ছাড়া নবীগঞ্জের আরেক গ্রামে এক শিশু ডুবে মারা গেছে।

মারা যাওয়া দুই ভাই হলো রাহান (৭) ও শাহান (১১)। তারা নবীগঞ্জ উপজেলার জাহিদপুর গ্রামের মো. আজমান উল্লার ছেলে। অন্য ঘটনায় মারা যাওয়া শিশুর নাম সুপ্ত বৈষ্ণব (৯)। সে সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লা উপজেলার বেরাডন্দম গ্রামের সমেরন্ড বৈষ্ণবের ছেলে।

পুলিশ ও নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, মো. আজমান উল্লার প্রতিবন্ধী শিশু শাহান আজ বিকেল সাড়ে পাঁচটায় বাড়ির পাশে একটি পুকুরে পড়ে গেলে পানিতে তলিয়ে যায়। এ দৃশ্য দেখে তাঁর ছোট ভাই রাহান (৭) পুকুরে ঝাঁপ দিয়ে বড় ভাইকে উদ্ধার করতে যায়। তবে দুই ভাই-ই পানিতে তলিয়ে যায়। পরিবারের লোকজন বাড়ির পুকুরে ভাসমান অবস্থায় দুই ভাইকে উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। অন্যদিকে, আজ দুপুরে সুপ্ত বৈষ্ণব নবীগঞ্জ উপজেলার আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসে পানিতে ডুবে মারা গেছে।

নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল হোসেন তিন শিশুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।