ছাতকে মরমী কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদ স্মরণে লোক উৎসব

5

বিজয় রায়, ছাতক
মরিলে কান্দিসনা আমার দায়রে যাদুধন…। সিলেট পরতম আযান ধ্বনি শাহজালাল বাবায় দিয়াছেন…সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের রচয়িতা মরমী কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদ স্মরণে লোক উৎসব উদযাপন করা হয়েছে। মরমী কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদ লোক উৎসব উদযাপন পর্ষদের উদ্যোগে মঙ্গলবার রাতে উপজেলার গোবিন্দগঞ্জস্থ বালু মাঠে অনুষ্ঠিত লোক উৎসবে দেশের বিশিষ্ট লোকসংস্কৃতি গবেষক, কবি, সাহিত্যিক, নাট্যকার, সাংবাদিক, বাউল শিল্পি ও জনপ্রতিনিধিদের পদচারনায় উৎসব অঙ্গণ মুখরিত হয়ে উঠে। উৎসবে গুণিজন সম্মাননা, মরিলে কান্দিসনা আমার দায় বইয়ের মোড়ক উন্মোচন, কবির বর্নাঢ্য জীবনী নিয়ে আলোচনা ও তার লেখা গান পরিবেশন করেন দেশের খ্যাতনামা শিল্পীরা। উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত লোক সংগীত শিল্পী, সুনামগঞ্জের কৃতী সন্তান সুষমা দাশ।
লোক উৎসব উদযাপন পর্ষদের আহবায়ক, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মরমী কবির জীবনী ও তার লেখা গান নিয়ে স্মৃতিচারণমুলক বক্তব্য রাখেন, একুশে পদক প্রাপ্ত লোক সংগীত শিল্পি সুষমা দাশ, বাংলা একাডেমির সহকারী পরিচালক লোকসংস্কৃতি গবেষক ও নাট্যকার ড. সাইমন জাকারিয়া, নাগরীলিপি গবেষক মোস্তফা সেলিম, ছাতক উপজেলা সাবেক নির্বাহী অফিসার ও অতিরিক্ত সচিব লুৎফুর রহমান, প্রখ্যাত সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমদের সহধর্মীনি নাট্য অভিনেত্রী ও পরিচালক মেহের আফরোজ শাওন, লোকসংস্কৃতি গবেষক ও প্রাবন্ধিক সুমন কুমার দাশ, শিল্পি হিমাংশু বিশ্বাস, জামাল উদ্দিন হাসান বান্না, ভারতের কবি কাজল চক্রবর্তী, ছাতক উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চৌধুরী, পৌর সভার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আবদুল ওয়াজিদ মজনু, কবিপুত্র আনোয়ার হোসেন রনি। বাংলাদেশ বেতারের উপস্থাপক সৈয়দ সাইমুম আনজুম ইভানের পরিচালনায় আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উদযাপন পর্ষদের সদস্য সচিব ও গোবিন্দগঞ্জ আবদুল হক স্মৃতি অনার্স কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মহী উদ্দিন। এর আগে উদযাপন পর্ষদ এর পক্ষ থেকে গুনীজনদের উত্তরীয় ও সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। আলোচনা শেষে সিলেট অঞ্চলের উপস্থিত শিল্পিদের সম্মিলিত কণ্ঠে মরমী কবির লেখা ‘সিলেট পরতম আযান ধ্বনি শাহজালাল বাবায় দিয়াছেন এ গানটি পরিবেশন করা হয়। মরন সংগীত হিসেবে খ্যাত ‘মরিলে কান্দিসনা আমার দায়রে যাদুধন এ গানটি পরিবেশন করেন মেহের আফরোজ শাওন। শেষ বিয়ার সানাই বাজিল ডাকছে কাল সমনে আমার বাসর হবে গো– কবি গিয়াস উদ্দিনের এ গানটি পরিবেশন করেন, সেলিম চৌধুরী। এছাড়া মরমী কবির লেখা বিভিন্ন গান পরিবেশন করেন, একুশে পদকপ্রাপ্ত লোক সংগীত শিল্পি সুষমা দাশ, আশিক, হিমাংশু বিশ্বাস, জামাল উদ্দিন হাসান বান্না, কৃঞ্চকলি, বাউল আবদুর রহমান, বাউল পাগল কালা মিয়া, বাউল বিরহী কালা মিয়া, বাউল সিরাজ উদ্দিন, বাউল সূর্যলাল, লাভলী দেব, পঙ্কজ দেব, তন্নি দে, সুপ্রিয়া দে, প্রদীপ কুমার মল্লিক, অন্তরা বিশ্বাস পিংকি, লিংকন দাশ, জাহাঙ্গীর আলমসহ শিল্পিবৃন্দ। অনুষ্ঠানে বাতিঘর কর্তৃক প্রকাশিত লোক সংস্কৃতি গবেষক ও প্রাবন্ধিক সুমন কুমার দাশ সংকলিত মরমী কবির নির্বাচিত গান নিয়ে ‘মরিলে কান্দিসনা আমার দায়’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন, সুষমা দাশ ও লুৎফুর রহমানসহ অতিথিরা। এসময় সুনামগঞ্জের এএসপি সার্কেল বিল্লাল আহমদ, ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সুন্দর আলী ও নিজাম উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা কবির উদ্দিন লালা, মুজিবুর রহমান, সদরুল আমীন সুহানসহ কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ী, উদযাপন পর্ষদের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মরমী কবি গিয়াস উদ্দিন আহমদ ১২ আগষ্ট ১৯৩৫ সালে ছাতক উপজেলার ছৈলা আফজলাবাদ ইউনিয়নের শিবনগর গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতা ছিলেন ফতেহ উল্যাহ ও মাতা অমুরতা বিবি। তিনি ১৯৭৪ সালে গীতিকার হিসেবে বাংলাদেশ বেতারে স্বীকৃতি লাভ করেন। ১৯৮৯সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে ঝলক ইন্টারন্যাশনাল আর্টিস এসোয়েশনের নিমন্ত্রনে সফর করেন। ২০০৫ সালের ১২ এপ্রিল এ গুনী কবি মারা যান।

  •