গোলাপগঞ্জে আগ্নেয়াস্ত্রসহ ডাকাত আটক | গোলাগুলিতে পুলিশসহ আহত-৪

19

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি
গোলাপগঞ্জে একাধিক মামলার আসামি ও ডাকাত আব্দুল মান্নান (৪০)-কে আটক করেছে পুলিশ। গত বুধবার সকালে নিজ এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। আটক আব্দুল মান্নানের বাড়ি উপজেলার ১নং বাঘা ইউনিয়নের গোলাপনগর উত্তরগাঁওয়ে। সে মৃত আছাব আলী পুত্র। আব্দুল মান্নানকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করলে তার তথ্যের ভিত্তিতে অস্ত্র উদ্ধারের লক্ষ্যে ওইদিন দিবাগত রাত পৌনে ৩টায় পুলিশ আবারো অভিযান চালায়। এসময় পুলিশ ও ডাকাতের মধ্যে গোলাগুলিতে তিন পুলিশসহ গুরুতর আহত হয়েছে ডাকাত আব্দুল মান্নান এবং অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয়েছে পাইপগানসহ বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র।
থানা সূত্রে জানা যায়, কুখ্যাত ডাকাত আব্দুল মান্নানকে গ্রেপ্তারে পর বিভিন্ন অপরাধ মুলক বিষয়ে পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তার তথ্যের ভিত্তিতে অস্ত্র উদ্ধারের লক্ষ্যে বুধবার গভীর রাতে অভিযান চালানো হয়। পুলিশ আব্দুল মান্নানকে সঙ্গে নিয়ে গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের তহিপুরে একটি ব্রিক ফিল্ডের কাছে পৌছা মাত্র পুলিশকে লক্ষ্য করে মান্নানের সহযোগীরা গুলি চালায়। এ সময় দুষ্কৃতিকারিদের গুলিতে গোলাপগঞ্জ থানার এসআই পিন্টু সরকার, কনস্টেবল রকি কাজী, কনস্টেবল মাসুদ মিয়া আহত হন। ওপর দিকে গোলাগুলি চলাকালীন সময়ে ডাকাত মান্নানের ডান পায়ে গুরুতর জখম হয়। আহত পুলিশ সদস্যদের গোলাপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের চিকিৎসা প্রদান করা হলেও ডাকাত মান্নানকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় তৈরী পাইপগান, দু’টি বন্দুকের কার্তুজ, দুটি রামদা উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়।
এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ডাকাত আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা ছাড়াও সিলেটের বিভিন্ন থানায় ১৩টি মামলা রয়েছে। সে কুখ্যাত ও পেশাদার ডাকাত।

  •