সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজে পরিকল্পনামন্ত্রী শিক্ষা ব্যবস্থাকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নির্ভর করা হবে

5

স্টাফ রিপোর্টার
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, শিক্ষাক্ষেত্রে আমাদের বিশাল চিন্তা ভাবনা রয়েছে। মানবিক বিষয়গুলোকে আমরা অবহেলা করি না। কিন্তু পৃথিবী প্রযুক্তি নির্ভর সেদিকে আমাদের যেতে হবে। তাই আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা কেরানী নির্ভর না করে বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্ভর করা হবে। আমরা দেখেছি কোনো কোনো কলেজে ২০-২৫ হাজার শিক্ষার্থী থাকে, সেটি গ্রহণযোগ্য নয়। এখনো সিদ্ধান্ত না হলেও চিন্তা ভাবনা রয়েছে কিভাবে সেটি নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন প্রতিটি কলেজ সংখ্যা নির্ধারণ করবে ৫-৭ হাজার। প্রয়োজন হলে আরেকটি কলেজ তৈরি করা হবে। সেই লক্ষে আমরা সুনামগঞ্জে বিশ্ববিদ্যালয় করবো, ইতিমধ্যে দুই স্তর শেষ হয়ে গেছে, এখানে মেডিকেল কলেজের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। কৃষি নিয়ে এখানে একটি প্রতিষ্ঠান করার চিন্তাভাবনা রয়েছে।
গতকাল শুক্রবার সকালে সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ নীলিমা চন্দের সভাপতিত্বে ও সহকারী অধ্যাপক জাকির হোসেন এবং মৌলী মজুমদারের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল মোমেন, কলেজের উপাধ্যক্ষ মাজহারুল ইসলাম, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জিয়াউল হক প্রমুখ।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে যে ব্যক্তি এতো কাজ করছেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী তাঁকে আমাদের উৎসাহ দেওয়া প্রয়োজন, সহায়তা দেওয়া প্রয়োজন কিন্তু বাধা দেওয়া কোনো সময় গ্রহণযোগ্য হবে না। আমি মনে করি এটা হবে উনার প্রতি অকৃতজ্ঞতা। আমাদের বর্তমান প্রজন্মের যারা রয়েছেন তোমাদের কাছে অনুরোধ শক্তি, সময়, মেধা দিয়ে আমাদের দেশ গঠনে প্রধানমন্ত্রীকে সহায়তা করবে। তিনি অন্যায় করলে তোমরা বাধা হবে। আমার জানা মতে তিনি কোনো অন্যায় কাজ করছেন না, ন্যায়ের কাজ করেছেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের উন্নয়নে আমাকে বলা হয়েছে এখানে একাডেমিক ভবন তৈরি হচ্ছে। তাছাড়া গাড়ির কথা বলা হয়েছে। এখানে এমপি মহোদয় রয়েছেন আমিও বিশেষভাবে সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজে দুটি বাসের ব্যবস্থা করে দেব। সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের উন্নয়ন আমরা আরও করবো।

  •