শিক্ষার উন্নয়নে সরকার নানামুখী পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করছে -মন্ত্রী ইমরান আহমদ

7

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি
সরকারের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি বলেছেন, শিক্ষারমান উন্নয়নে সরকার নানামুখী প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।
তিনি গতকাল শনিবার বিকেল তিনটায় গোয়াইনঘাট উপজেলার ঐতিহ্যবাহী সোনার বাংলা উচ্চবিদ্যালয়ের একাডেমিক সম্প্রসারিত ভবনের তৃতীয় তলার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
সোনার বাংলা উচ্চবিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি এম এ লতিফের সভাপতিত্বে ও সোনার বাংলা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নূরুল হকের পরিচালনায় মন্ত্রী আরো বলেন, শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। গবেষণা ও বিজ্ঞান শিক্ষায় গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার।
মন্ত্রী জানান, উচ্চশিক্ষা প্রসারে বিশেষ ফান্ড গঠন করা হয়েছে। কারিগরি, বিজ্ঞানসহ সব ধরনের শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিয়ে কারিকুলাম পরিবর্তন করেছে সরকার।
আমরা কারিগরি শিক্ষা ও বিজ্ঞান শিক্ষাকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছি। আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণা দিয়ে বসে নেই। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার জন্য যা যা করণীয় তার সবকিছুই আমরা করে যাচ্ছি।
জাতির পিতা শিক্ষাকে সব থেকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন বলে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা শিক্ষাকে অবৈতনিক ঘোষণা করেছিলেন। সংবিধানে শিক্ষাকে গুরুত্ব দিয়েছিলেন। শিক্ষার মাধ্যমে জাতিকে তিনি উন্নত করতে চেয়েছিলেন।
তিনি আরও বলেন, বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে শিক্ষাব্যবস্থা করেছি। আমরা শিক্ষানীতি তৈরি করি। আমরা মানুষের মধ্যে শিক্ষার আগ্রহ বাড়াতে কাজ করেছি। সরকারের শাসনামলে শিক্ষাক্ষেত্রে নানা উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে গবেষণা ও বিজ্ঞান শিক্ষার ওপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন।
শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়া ঠেকাতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেয়া হচ্ছে। শিক্ষাব্যবস্থায় আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের ওপর গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।
গ্রাম পর্যন্ত মানুষের আর্থিক স্বচ্ছলতা এসেছে জানিয়ে তিনি বলেন, অর্থনৈতিকভাবে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে বলেই শিক্ষার প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ছে। যারা ক্ষমতাকে ভোগের বস্তু মনে করে- তারা কখনও দেশের উন্নয়ন করতে পারে না। নিজেদের নয়-দেশের ভাগ্য ফেরানোয় ভাবনায় ব্যস্ত আওয়ামী লীগ।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক কাজী এম এমদাদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুস সাকিব, গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল আহাদ, গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইব্রাহিম, গোয়াইনঘাট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. ফজলুল হক, সোনার বাংলা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল মুনিম, তোয়াকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. খালেদ আহমদ, সাবেক চেয়ারম্যান ও তোয়াকুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ লোকমান, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এড, জামাল উদ্দিন, নন্দীরগাওঁ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস কামরুল হাসান আমিরুল, তোয়াকুল উচ্চবিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. সিরাজ উদ্দিন, শামছুউদ্দীন আল আজাদ, গোয়াইনঘাট উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আহমেদ মোস্তাকিন, সুবাস দাস, হান্নান সিদ্দিকী, জেলা ছাত্রলীগ নেতা মো. দেলওয়ার হোসেন, ফয়েজ আহমদ, গোয়াইনঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহসভাপতি গোলাম রব্বানী সুমন।

  •