ক্ষুব্ধ মাশরাফির বিস্ফোরক জিজ্ঞাসা, আমি কি চোর?

7

স্টাফ রিপোর্টার
বিষয়টি অনুমেয়েই ছিল। বিশ্বকাপ থেকে শুরু করে বিপিএল অবধি মাশরাফিকে ছোড়া সংবাদ মাধ্যমের প্রশ্নবান জিম্বাবুয়ে সিরিজেও অব্যাহত থাকবে। আদতে হলোও তাই। আজ রোববার থেকে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠেয় ওয়ানডে সিরিজকে সামনে রেখে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ দলের দলপতির কাছে জানতে চাওয়া হলো তার শেষ ১০ ম্যাচের পারফরম্যান্স নিয়ে তিনি কতটুকু সন্তুষ্ট? জবাব দিতে গিয়ে মেজাজ হারালেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের দিন বদলের অধিনায়ক মাশরাফি। সংবাদ মাধ্যমকে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে জানতে চাইলেন, আমি কি চোর?
গতকাল শনিবার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়োজিত ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে তিনি এভাবেই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।
ক্ষুদ্ধ মাশরাফি বলেন, ‘আমি কি চুরি করি মাঠে? আমি কি চোর? খেলার সঙ্গে লজ্জা, আত্মসম্মান – আমি মিলাতে পারি না। এতো জায়গায় এতো চুরি চামারি হচ্ছে, তাদের কোনো লজ্জা নেই। উইকেট আমি না-ই পেতে পারি। আমার সমালোচনা আপনারা করবেন, সমর্থকরা করবে। লজ্জা পেতে হবে কেন? আমি কী বাংলাদেশের হয়ে খেলছি নাকি অন্য কোনো দেশের হয়ে খেলছি যে আমার লজ্জা পেতে হবে? আমি পারিনি আমাকে বাদ দিয়ে দিবেন। জিনিসটা তো সাধারণ। এখন কথা হচ্ছে, আমার লজ্জা, আত্মসম্মানবোধ আমি কার সঙ্গে দেখাতে যাব।’
‘আমি তো বাংলাদেশের হয়ে খেলতে নামছি। আমি কি বাংলাদেশের মানুষের বিপক্ষের কেউ? যে কেউই পারফর্ম নাই করতে পারে। তার কোনো জায়গায় কমতি থাকলে সেগুলো নিয়ে প্রশ্ন থাকতেই পারে। খারাপ করলে সমালোচনা হবে, এটা সারা বিশ্বেই হচ্ছে। কিন্ত কথাটা যখন আসে লজ্জা আত্মসম্মানের, তখন আমার প্রশ্ন থাকে। আমার সমালোচনা করুক, কিন্তু আমার আত্মসম্মানবোধের প্রশ্ন আসছে কেন? আমি কি অন্য দেশের হয়ে খেলছি? তা তো না। সুতরাং এই জিনিসটার সঙ্গে আমি মোটেও এক মত না।’
ওয়ানডে ফরম্যাটে বাংলাদেশের হয়ে সবশেষ ম্যাচটি খেলেছিলেন বিশ্বকাপে। ৫ জুলাই লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটিই ছিল ৫০ ওভারের শেষ, অধিনায়ক ও বোলার হিসেবে মাশরাফি। বিশ্বমঞ্চে ৮ ম্যাচ খেলে ১টি উইকেট নিয়েছিলেন ম্যাশ। তার আগে আয়ারল্যান্ডে খেলা ত্রিদেশীয় সিরিজের শেষ দুই ম্যাচও ছিলেন উইকেট শূন্য।
বিশ্বকাপে মাশরাফির পারফরম্যান্সহীনতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন সতীর্থ সাকিব আল হাসানও। দেশের একটি দৈনিককে বলেছিলেন ‘অধিনায়ক পারফরম্যান্স না করলে দলের জেতা কঠিন হয়ে যায়। আমাদের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে।’ প্রায় ৮ মাস পর মাঠে গড়ানো ওয়ানডে সিরিজের ঠিক আগের দিন সেই সম্পূরক ব্যাপারটিই মাশরাফিকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি এভাবেই উত্তর দেন।

  •