গোলাপগঞ্জে অজ্ঞাত লশের পরিচয় শনাক্ত

7

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি
গোলাপগঞ্জের ফুলবাড়ি ইউনিয়নের হাজীপুর ঘনশ্যামে উদ্ধারকৃত লাশের পরিচয় শনাক্ত করেছে পুলিশ। অজ্ঞাত নিহত এ কিশোরের নাম শাওন আহমদ। সে উপজেলার ভাদেশ্বর ইউনিয়নের নালীউড়ি গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছোট ছেলে। বর্তমানে নিহত শাওন আহমদের পরিবার একই উপজেলার ফুলবাড়ি ইউনিয়নের মোলাগ্রাম এলাকায় বসবাস করছেন। নিহত শাওন আহমদ পেশায় ব্যাটারি চালিত রিকশাচালক ছিল। সংবাদ পেয়ে গত মঙ্গলবার রাত ১০ ঘটিকার দিকে নিহতের ভাই সাগর আহমদ থানায় এসে তার পোশাক দেখে লাশটি শনাক্ত করেন।
নিহতের বড়ভাই সাগর আহমদ জানান, শাওন আহমদ প্রতিদিনের ন্যায় গত ২১ ফেব্রুয়ারি ব্যাটারি চালিত রিকশা নিয়ে বের হলে সে আর বাড়ি ফেরেনি।
এরপরদিন শাওন যে রিক্সা ভাড়ায় চালাতো তা পরিত্যাক্ত অবস্থায় উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের একটি সড়কের পাশে পাওয়া যায়। এরপর তিনি গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন বলে জানান তিনি।
এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন, নিহত কিশোরের লাশ সনাক্ত করেছে তার পরিবার। গতকাল বুধবার ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের নিকট লাশ হস্তান্তর করা হয়। এব্যাপারে এখনো কোন মামলা হয়নি বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলার ফুলবাড়ি ইউপির হাজীপুর ঘনশ্যাম গ্রামের স্থানীয় একজন কৃষক সুরমা নদীর পাশের ডোবায় মাটিতে মাথা পোতা অর্ধগলিত একটি লাশটি দেখতে পান। বিষয়টি থানা পুলিশকে সংবাদ দিলে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার এসআই হেলাল আহমদ একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘটনাস্থল থেকে তিনি লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন।

  •