বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে বলৎকার করা হয় শিক্ষার্থীকে ওসমানীনগরে মনফর মোল্লা গ্রেপ্তার

10

ওসমানীনগর প্রতিনিধি
ওসমানীনগরে চকলেট ও বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে মনফর আলী মোল্লা (৬০) নামের এক বৃদ্ধ কর্তৃক তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র বলৎকারের শিকার হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে উপজেলার গোয়ালাবাজার ইউপির ১৯ মাইল বাজারে ঘটনাটি ঘটেছে। বলৎকারকারী মনফর আলী উপজেলার কলারাই গ্রামের মৃত আহসান উল্লাহ’র ছেলে। নির্যাতিত শিশু কলাইরাই সুরুজ আলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র।
এ ঘটনায় শিক্ষার্থীর পিতা বাদি হয়ে গত শনিবার ১১টায় মনফর আলীকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ওসমানীনগর থানায় (মামলা নং-০২) দায়ের করলে পুলিশ মনফর মোল্লাকে গ্রেপ্তার করে।
পুলিশ ও নির্যাতিতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে বলৎকারের শিকার হওয়া ছাত্র অভিযুক্ত মনফর আলীর ১৯ মাইলস্থ দোকানে বৃষ্টির কারণে আশ্রয় নেয়। সেই সুযোগে দোকানের মালিক মনফর আলী ঐ চকলেট ও বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে শিশুকে দোকানের বেতরে জোরপূর্বক বলৎকার করে।
বিষয়টি স্থানীয়রা দেখে ফেললে ও বলৎকারের শিকার হওয়া শিশুটি তার পরিবারের লোকজনকে জানালে ঐ ছাত্রের পরিবারের পক্ষ থেকে শনিবার ওসমানীনগর থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ বলৎকারকারী মনফর আলীকে গ্রেপ্তার করে বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে। নির্যাতিত শিশুটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার (ওসিসিতে) প্রেরণ করে।
ওসমানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ রাশেদ মোবারক বিষয়টির নিশ্চিত করে বলেন, শিশু বলৎকারের ঘটনায় শিশুর পিতা বাদি হয়ে থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে আসামী মনফর আলীকে গ্রেপ্তার করেছে। শিশুটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার(ওসিসিতে) প্রেরণ করা হয়েছে।

  •