জেলা জজের অপসারণ দাবি কালো কাপড়ে ঢাকা শহিদমিনার

8

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহিদমিনারের অবমাননা দখল ও অবজ্ঞার প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাদের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল রোববার সকালে শহরের ডিএস রোড এলাকায় সুনামগঞ্জের শহরের আলফাত স্কয়ার রোড এলাকায় হয়ে একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন মুক্তিযোদ্ধা। বিক্ষোভ মিছিলটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে গেলে এসময় মুক্তিযোদ্ধারা সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহিদমিনার এলাকা থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করে পুনরায় শহিদমিনার প্রাঙ্গণে প্রতিবাদ সমাবেশ ও অবস্থান করতে থাকেন।
কেন্দ্রীয় শহিদমিনারে অবস্থান ও প্রতিবাদের মাধ্যমে জেলা জজকে দ্রুত বদলির দাবি জানিয়ে মুক্তিযোদ্ধারা বলেন, এই শহিদমিনারটি স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম শহিদমিনার। ১৯৭১ সালের ৬ ডিসেম্বর হানাদার বাহিনীর হাত সুনামগঞ্জ মুক্ত হওয়ার পর সাবেক তৎকালীন সাব-সেক্টর কমান্ডার মেজর এম এ মোতালিবের তদারকির মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধারা এ শহিদমিনার তৈরি করেন। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর এ শহিদমিনারে এ পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সুনামগঞ্জের মানুষেরা। কিন্তু ১৯৭১ সাল থেকে ২০২০ এই দীর্ঘদিন বিভিন্ন জেলা জজ এসেছেন কিন্তু বর্তমান জজ শহিদমিনারের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন।
বক্তারা বলেন, আমরা মনেকরি তিনি শহিদদের অপমান করছেন, স্বাধীনতার বিরুদ্ধে তার অবস্থান। আমরা যখন জজের সাথে দেখা করলাম উনি বললেন শহিদমিনারের আশে-পাশের স্থাপনাগুলো সরিয়ে নেওয়া হবে কিন্তু একটি স্থানের স্থাপনা ভেঙে ফেলেন এবং কাঁটাতার দিয়ে শহিদমিনারের জায়গাকে ছোট করছেন।
মুক্তিযোদ্ধা সন্তান জুনেদ আহমেদ বলেন, দেশের উন্নয়ন নিয়ে আজকে আমাদের দাঁড়ানোর কথা ছিলো কিন্তু আমাদের দাঁড়ানোর কারণ এ শহিদমিনারকে অস্বীকার করেছে জেলা জজ। তিনি উল্লেখ করেছেন, এখানে কোন শহিদমিনার নেই। এটা দুঃখজনক ঘটনা। আমাদের যে জায়গায় সুনামগঞ্জ শহিদমিনার রয়েছে আপনি সেই জায়গা মুক্ত করে দিন।
বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান বলেন, আজকে আমরা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছি। আমরা এরই মাধ্যমে সুনামগঞ্জের জেলা জজের অপসারণ চাই, বদলি চাই। আমাদের জায়গা আমাদের ফিরিয়ে দিন, এটা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ও ভাষা শহিদদের আবেগের জায়গা।
উল্লেখ্য, সুনামগঞ্জের তেঘরিয়া মৌজার ৪২১নং দাগের, জেএল ১৪৪ এবং ৯নং খতিয়ানের এ ভূমি নিয়ে সম্প্রতি বিরোধ দেখা দিয়েছে। ২০১৪ সালে শহিদমিনারের এ ভূমি স্বত্বপ্রচার ও হালজরিপে জেলা জজের নামে রেকর্ডের জন্য ১৪৪/২০১৪ মামলা দায়ের করেন আদালতের নাজির। এরই পর থেকে সুনামগঞ্জের মুক্তিযোদ্ধারা বিভিন্নভাবে প্রতিবাদ করে আসলেও তার এখনো কোন সুরাহা হয়নি।

  •