যুক্তরাষ্ট্র মিশিগান ষ্টেটের ক্যান্টন সিটিতে অনুষ্ঠিত হলো পিঠা উৎসব ২০২০

109
কামরুজ্জামান হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র:
 প্রতি বছরের ন্যায় গত রবিবার ওয়েস্টল্যান্ড কমিউনিটি সেন্টার মিশিগানে অনুষ্ঠিত হলো ১০ তম পিঠা উৎসব। প্রবাসী বাংলাদেশিদের কর্মচঞ্চল জীবনে খানিকা স্বস্তি পেতে, শীত এবং বরফের বন্দিত্ব ছুঁড়ে ফেলে এ আয়োজনে উপস্তিত ছিলেন মিশিগান এ বসবাসরত সকল বাংলাদেশী, সকলে মহাধুমধামের মধ্যদিয়ে পিঠা উৎসব উৎযাপন করে। প্রবাস জীবনেও বাঙালির সেই সংস্কৃতির ছোঁয়া এনে দিয়েছে এই পিঠা উৎসব প্রবাসে শীত থাকবে আর পিঠা উৎসব হবেনা ? আর তাই এই আয়োজন থেকে বিচ্ছিন্ন করতে পারেনি প্রবাসী বাংলাদেশীদের।
অনুষ্টানে ব্যবসায়ী, রাজনৈতিক, কমিউনিটির গণ্য মান্য ব্যক্তি বর্গ ছাড়া ও আমেরিকার মুলধারার রাজনীতির সাথে যারা জড়িত দল মত নির্বিশেষে সকলের অংশগ্রহণ ছিলো চোখে পড়ার মতো। কথা হলো এই পিঠা উৎসবের পিছনের মানুষটির সাথে যিনি দীর্ঘ দশ বছর ধরে আয়োজন করে চলেছেন সালমা সাইফ, তিনি জানালেন ২০০১ সালে বাংলাদেশে সরকারী ব্যাংকের চাকুরী ছেড়ে Husband এর সাথে চলে আমেরিকাতে তার পরে জীবন সংগ্রাম শুরু প্রবাস জীবন তারপরেও অনেক কিছু মিস করি সেই নিজের দায়ীত থেকে ১০ বছর আগে স্বল্প পরিসরে আয়োজন করি পহেলা বৈশাখ এবং পিঠা উৎসব , প্রথম দিকে পিঠা নিজেই তৈরি করতাম এখন বন্ধু বান্ধবীরা উত্সাহী হয়ে তারা সবাই আমাকে সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে এজন্য সবাইকে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি, আমি মনেকরি বাংলাদেশের সাংস্কৃতি, বাংলাদেশী পোশাক, গহনা, খাবার, এবং বিভিন্ন উৎসব প্রবাসে উৎযাপন এবং বাংলাদেশের পতাকা কে তুলে ধরতে পেরে নিজেকে ধন্য মনেকরি। পিঠা উৎসবে উল্লেখ যোগ্য পিঠার মধ্য ছিলো: ভাপা, পুলি, চিতই, পাটিসাপটা, চুঙ্গা পিঠা, গোলাপ ফুল পিঠা, লবঙ্গ লতিকা, রসফুল পিঠা, জামদানি পিঠা, হাঁড়ি পিঠা, ঝালপোয়া, ঝুরি পিঠা, ঝিনুক পিঠা, সূর্যমুখী পিঠা, নকশি পিঠা, নারকেল পিঠা, নারকেলের ভাজা পুলি, দুধ চিতই কত কী বিচিত্র সব পিঠার সমারোহ ছিলো।
পিঠা উৎসবটির সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন সালমা সুলতানা এবং অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন মোহাম্মদ জামান,রোবু রহমান, আজিজ খন্দকার, আনিসুর রহমান, লিয়াকত আলী, খালেদ মাহমুদ, হাবীবা জামান, শামীমা রহমান, কামরুন মুক্তা, নাফিসা জাহেদ, লাইলী ফারজানা সহ আরো অনেকে। অনুষ্টানে বিভিন্ন টিভি ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্তিত ছিলেন।
  •