সিলেটে সৌদি ফেরত নারী হাসপাতালে করোনা ভাইরাস সন্দেহের পর উধাও

8

স্টাফ রিপোর্টার
সিলেটে সৌদি ফেরত এক নারী জ্ব¡র নিয়ে নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ডাক্তারে দেখাতে যান। পরে কর্তব্যরত ডাক্তাররা তার রোগের বিস্তারিত শুনে ‘করোনা ভাইরাস’ সন্দেহ করেন। একই সাথে তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে পরামর্শ দেন।
এছাড়াও কর্তব্যরত ডাক্তাররা রোগীকে প্রয়োজনীয় কিছু পরীক্ষাও লিখে দেয়া হয়। তিনি পরীক্ষা করানোর কথা বলে হাসপাতাল থেকে উধাও হয়ে গেছেন। পরে ডাক্তাররা অনেক খোঁজাখুঁজির পর তাকে না পেয়ে সিলেটের সিভিল সার্জনকে বিষয়টি অবহিত করেন।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে দক্ষিণ সুরমার নর্থ ইষ্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। হাসপাতালে ভর্তির তথ্য অনুযায়ী ৭০ বয়সী এই নারী মোগলাবাজারে ইসলামপুর এলাকার বাসিন্দা।
সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল বলেন, সৌদি ফেরত এই নারী ১ সপ্তাহ আগে দেশে আসেন। দেশে আসার পর তার জ্বর হলে তিনি আজ হাসপাতালে যান। এসময় তার কাছ থেকে রোগের বিস্তারিত তথ্য শুনে একই সাথে প্রবাসী হওয়ায় তাকে ‘করোনা ভাইরাস’ আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেন। কিন্তু তিনি এরপরই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান। এরপর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী যোগাযোগ করলেও কোন সাড়া পায়নি।
তিনি আরও বলেন, আমরা চেষ্টা করছি রোগীর স্বজনদের বুঝিয়ে প্রবাসী এই নারীকে কোয়ারেন্টাইনে নিয়ে আসতে। যদি তিনি আসতে না চান তাহলে তাকে বাড়ির মধ্যেইকোয়ারেন্টাইন করে রাখা হবে।
প্রসঙ্গত, এর আগে ৪ মার্চ এক দুবাই প্রবাসী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি হন। গত বৃহস্পতিবার প্রবাসীর রক্ত সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। সেই পরীক্ষার রিপোর্ট গত রোববার সিলেটে এসে পৌঁছে। রিপোর্টে তার দেহে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব না পাওয়ায় তাকে বাড়িতে যাওয়ার ছাড়পত্র দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
এদিকে করোনা ভাইরাস সন্দেহে বাংলাদেশের চারজনকে কোয়ারেন্টাইনে এবং আটজনকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে জাতীয় রোগতত্ত¡, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে করোনা ভাইরাসের সবশেষ পরিস্থিতি ও স্বাস্থ্য সতর্কতা বিষয়ে এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

  •