সিলেটে মেয়র-শ্রমিকদের তুলকালাম কান্ড

20

স্টাফ রিপোর্টার
নগরীতে রাস্তার উপর বেঞ্চ সরানো ও রাস্তায় গাড়ি পার্কিংকে কেন্দ্র করে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে তুলকালাম কান্ডের ঘটনা ঘটেছে।
গতকাল বুধবার দুপুরে নগরীর চৌহাট্টা এলাকায় সিভিল সার্জনের গেইটের সামনে মাইক্রোবাস শ্রমিকদের অফিসের সামনের টোল ও রাস্তায় গাড়ি সরানো নিয়ে এ ঘটনা ঘটে। এসময় পরিবহন শ্রমিকরা চৌহাট্টা পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে মেয়র বিরোধী ¯েøাগান দিতে থাকেন। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
এদিকে এ ঘটনায় শ্রমিকরা দাবি করছেন, মেয়রের হামলায় তাদের তিনজন আহত হয়েছেন। তবে মেয়র বলছেন, এ ধরণের কোন ঘটনাই ঘটেনি। কিভাবে আহত হল তা তিনি জানেন না।
শ্রমিকরা জানান, সকাল ১১টার দিকে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী কয়েকজন লোক নিয়ে এসে স্ট্যান্ডে থাকা গাড়িগুলোর উপর ভাঙচুর চালান। এসময় ১টি গাড়ি ভাঙেন তিনি ও তার লোকজন এবং এই স্ট্যান্ডের সাংগঠনিক সম্পাদক সাহেল আহমদকে মারধর করে আহত করেন তারা। সাহেল আহমদ এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
তবে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, আমরা সকালে মাজার এলাকায় পরিছন্নতা অভিযান করি। সেখান থেকে আসতে সময় সিলেটের সিভিল সার্জন অফিসের সামনে রাস্তার উপর তৈরি করা পরিবহন শ্রমিকদের একটি অফিস রয়েছে। সেই অফিসের সামনে অর্থাৎ রাস্তার বেশিরভাগ অংশজুড়ে একটি বেঞ্চ রাখা ছিল। প্রথমে আমরা এটি সরাতে যাই। এসময় শ্রমিকরা কোন কিছু না বুঝেই উত্তেজিত হয়ে যায়। পরে আমি তাদেরকে বলি রাস্তা থেকে গাড়িগুলো সরিয়ে নিতে। এরপর কেন তারা সড়ক অবরোধ করলো তা আমার বোধগম্য নয়। কারণ এখানে এমন কিছুই হয় নি। আর শ্রমিক আহত হওয়ার বিষয়টিও তিনি জানেন না বলে জানিয়েছেন।
আর প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সড়কের উপর গাড়ি পার্কিং করা অবস্থায় মেয়র আরিফুল হক এসে গাড়ি সরিয়ে নেয়ার কথা বলেন। এসময় গারি রাখা না রাখা নিয়ে মেয়রের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়ান শ্রমিকরা।
কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিঞা বলেন, গারি ভাঙচুর না, রাস্তা পরিষ্কার নিয়ে চৌহাট্টায় মেয়রের সাথে গাড়ি শ্রমিকদের ঝামেলা হয়েছে। এসময় শ্রমিকরা সড়ক অবরোধের চেষ্টা করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপর বেলা ১ টার দিকে আবারও শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করলে পুলিশ তাদেরকে পয়েন্ট থেকে সরিয়ে দেয়। তবে এটা যেহেতু ব্যস্ততম একটি সড়ক তাই এখানে গাড়ি পার্কিং করার কোনো সুযোগ নেই বলেও জানান কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

  •