সারাদেশে ২৩১৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

8

সবুজ সিলেঠ ডেস্ক
করোনা ভাইরাসের বিস্তাররোধে গোটা বাংলাদেশে ২ হাজার ৩১৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে (আলাদা বসবাস) রয়েছেন বলে জানিয়েছেন সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।
গতকাল রোববার রাজধানীর মহাখালীতে আইইডিসিআরের সম্মেলন কক্ষে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান।
ডা. ফ্লোরা বলেন, দেশের সমস্ত সিভিল সার্জন ও গোটা দেশ থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ২ হাজার ৩১৪ জন। এছাড়া আক্রান্ত দেশ থেকে যারা আসবেন, তাদের সবাইকে নজরদারিতে রাখা হবে। প্রশাসন, স্থানীয় পর্যায়ের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও স্থানীয় প্রতিনিধিরা তাদের ওপর নজর রাখবেন। তারা কোনো নিয়ম না মানলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। গত ৮ মার্চ প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে তিনজন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়।
এ বিষয়ে আইইডিসিআর পরিচালক বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) প্রটোকল অনুসারে ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে আক্রান্ত ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ ফলাফল এলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে করোনা সংক্রমণমুক্ত ঘোষণা করা হয়। প্রকোটল অনুসারে নমুনা পরীক্ষার পর প্রথমে ১৩ মার্চ দুজনকে করোনামুক্ত এবং আজ ১৫ মার্চ আরেকজনকে করোনামুক্ত ঘোষণা দেয়া হয়েছে।
গত শনিবার রাতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সংবাদ সম্মেলন করে জানান, বাংলাদেশে আরও দুইজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।
এ বিষয়ে ডা. ফ্লোরা জানান, তাদের একজন ইতালিফেরত, আরেকজন জার্মানিফেরত। তাদের আমরা এনেছি, হাসপাতালে রেখেছি। তারা ভালো আছেন।
চীনের উহান থেকে বিশ্বের শতাধিক দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ গেছে সাড়ে ৫ হাজারেরও বেশি মানুষের। আক্রান্ত হয়েছে আরও দেড় লক্ষাধিক মানুষ।

  •