করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শাহ আরেফিন (রহ.) এর ওরস ও পূর্ণার্থীদের স্নান বন্ধ

5

তাহিরপুর প্রতিনিধি
হজরত শাহ আরেফিন (র.)আস্থানায় ওরস ও পূর্ণার্থীদের স্নান উপলক্ষ্যে বারুনীমেলা মেলা বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। গতকাল সোমবার দুপুরে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক বিশেষ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিজেন ব্যানার্জী। শতাব্দীকাল ধরেই সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলায় প্রতি বছর মধূর্কষ্ণা ত্রয়োদশী তিথিতে যাদুকাটা নদীর পণতীর্থে ¯œান ও একই সময়ে লাউড়েরগড় শাহ আরেফিন (রহ.)-এর আস্থানায় তিনদিন ব্যাপী ওরস উদযাপন অনুষ্টিত হয়। এ দু’অনুষ্টানকে ঘিরে যাদুকাটা নদীর উভয় তীরে কয়েক লক্ষ মানুষের সমাগম ঘটে।এ বছর মার্চ মাসের ২১ তারিখ থেকে ২২মার্চ পর্যন্ত এ তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠান হওয়ার নির্ধারিত তারিখ ছিল। করোনা ভাইরাসের কারণে কয়েক দফা সভার পর মেলা ও ¯œানের সকল অনুষ্টান বন্ধে গতকাল সোমবার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন।
স্থানীয় সরকারের উপ পরিচালক এমরান হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, ২৮ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্ণেল মাকসুদুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শরিফুল ইসলাম, সিভিল সাজর্ন মো. সামছুদ্দিন, তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুনা সিন্দু চৌধুরী বাবুল, বিশ^ম্ভরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো, সফর উদ্দিন,তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিজেন ব্যানার্জী, সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি পংকজ দে,তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাব সাধারন সম্পাদক আলম সাব্বির,বাদাঘাট ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন প্রমুখ।
তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিজেন ব্যানার্জী বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জেলা প্রশাসন তাহিরপুর উপজেলার শাহ আরেফিন (র.)আস্থানায় ওরস ও পণতীর্থে ¯œান উপলক্ষ্যে বারুনীমেলা মেলা বন্ধসহ সকল ধরনের ওয়াজ মাহফিল,কীর্তন অনুষ্টান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
স্থানীয় সরকারের উপপরিচালক এমরান হোসেন বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমরা বিভিন্ন রকমের কার্যক্রম হাতে নিয়েছি।তাই সাধারন মানুষের লোক সমাগম যেন না হয় সে জন্য এ বছরের জন্য শাহ আরেফিন (রহ.) এর ওরস, পণাতীর্থের ¯œান ও বারুণীমেলা বন্ধ করা হয়েছে।

  •