সিলেটে হোম কোয়ারেন্টাইনে আরও ১৫৫ প্রবাসী

8

স্টাফ রিপোর্টার
সিলেট জেলা আরও ১৫৫ প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। এনিয়ে সিলেট জেলা সর্বমোট ৫৬৫ জনকে নভেল করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত সন্দেহে হোম কোয়রেন্টিন করে রাখা হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয় শীর্ষক আলোচনা সভায় এ তথ্য জানিয়েছেন সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল।
এদিকে করোনা ভাইরাসে দেশে নতুন করে আরও তিনজন আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে দুইজন পুরুষ ও একজন নারী এবং তারা একই পরিবারের সদস্য। সবমিলিয়ে দেশে এখন করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ জনে দাঁড়াল।
স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ গতকাল বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন। দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান তিনি।
দেশে করোনা মোকাবিলায় প্রস্তুতি প্রসঙ্গে মহাপরিচালক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের নেতৃত্বে বেশ কটি মন্ত্রণালয় নিয়ে ব্রিফ করেছি। সতর্কতা মেনে চলছে না। কঠোরতা নেয়া হচ্ছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মেসেজ (বার্তা) দিচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ শুরু করেছে। কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম না মানলে ব্যবস্থা নেবে আইনশৃংখলা বাহিনী। সতর্কতার পত্র পাঠানো হয়েছে।’
বাংলাদেশে প্রথম একজন করোনায় আক্রান্ত রোগী মারা গেছেন। বুধবার তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে সরকারের রোগতত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর)।
সিলেটে হোম কোয়ারেন্টাইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে প্রশাসন। প্রয়োজনে কোয়ারেন্টাইন অমান্যকারীদের মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল-জরিমানা করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার করোনা প্রতিরোধে গঠিত মাল্টিসেক্টরাল কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। সকাল সাড়ে ৯টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় সিলেট মেট্রোপলিটন এলাকা ছাড়াও জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও পৌরসভায় স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশের উদ্যোগে এ নিয়ে সচেতনতা করতে মাইকিং করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সিলেটের ডেপুুটি সিভিল সার্জন ডা: নুরে আলম শামীম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
কমিটির সদস্য সচিব সিলেটের সিভিল সার্জন ডা: প্রেমানন্দ মন্ডল ছাড়াও ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, পুলিশ সুপার ও মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতিনিধি সভায় উপস্থিত ছিলেন।

  •