কানাইঘাটে প্রতিপক্ষের হামলায় মৃত্যুপথযাত্রী প্রতিবন্ধী আহাদ

4


কানাইঘাট প্রতিনিধি
কানাইঘাটে প্রতিপক্ষের হামলায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে আব্দুল আহাদ নামের এক শারীরিক প্রতিবন্ধী যুবক। আহাদ লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়নের কালিনগর গ্রামের দিনমজুর আবুল হোসেনের ছেলে।
প্রতিপক্ষের হামলায় গত ৮দিন ধরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে সে। শারীরিক প্রতিবন্ধী আব্দুল আহাদের উপর এমন অমানুষিক নির্যাতনের ঘটনায় এলাকায় জনমনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।
ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রতিবন্ধী আব্দুল আহাদের পিতা আবুল হোসেন কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, কারো সাথে তার প্রতিবন্ধী ছেলের শত্রুতা নেই। গত ২২ মার্চ বিকেল ২টার দিকে স্থানীয় কালিনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশের তার চাচাতো ভাই মহির উদ্দিন একই গ্রামের আব্দুল কুদ্দুছের ছেলে আব্দুল মালিক (২৫) এর কাছে তার পাওনা টাকা চাইতে গেলে আব্দুল মালিকের পরিবারের লোকজন মহির উদ্দিনকে ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। তাকে প্রাণে রক্ষার জন্য তার পিতা এবাদুর রহমান এগিয়ে আসলে তাকেও গাড়ীর চাকার নিচে পিষ্ট করে আহত করেন আব্দুল মালিকের পরিবারের লোকজন।
এ সময় শারীরিক প্রতিবন্ধী আব্দুল আহাদ তার দাদা এবাদুর রহমান ও চাচা মহির উদ্দিনকে রক্ষা করতে এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা তার পেটে ছুরিকাঘাত করে। এতে রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে আব্দুল আহাদ। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকগণ তার জখম গুরুতর হওয়ায় সিওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে বর্তমানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে এ প্রতিবন্ধী যুবক।
এ ঘটনায় আহাদের পিতা আবুল হোসেন বাদী হয়ে ঘটনার দিন কানাইঘাট থানায় তার ছেলের উপর বর্বোরোচিত হামলার ঘটনায় আব্দুল মালিক, তার ভাই মামুন আহমদ, তাদের পিতা আব্দুল কুদ্দুছ, আজির উদ্দিনসহ ৭ জনকে আসামী করে অভিযোগ দায়ের করেন। বর্তমানে অভিযোগটি তদন্তাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।

  •