খাদ্য সামগ্রী বিতরণে সমন্বিত তালিকা প্রয়োজন : কুলাউড়ার ইউএনও

3

কুলাউড়া প্রতিনিধি

করোনাভাইরাসের সংকটকালীন সময় একই ব্যক্তিকে বারবার খাদ্যসামগ্রী বিতরণ না করে সবাই যাতে পায় সেই ব্যবস্থা করতে হবে বলে জানিয়েছেন কুলাউড়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী। এজন্য সবার উদ্যোগে সমন্বিত তালিকা করাও তাগিদ দেন তিনি।

বুধবার (১ এপ্রিল) সকালে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক অগ্রাধিকার তালিকা প্রস্তুত করতে কুলাউড়া পৌরসভার মেয়র ও সকল কাউন্সিলারদের সাথে এক পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক অগ্রাধিকার তালিকা তৈরি করে ত্রাণ বিতরণে যে মানুষ কর্মহীন (ভিক্ষুক, ভবঘুরে, দিনমজুর, রিকশা চালক, ভ্যানগাড়ি চালক, পরিবহন শ্রমিক, রেস্টুরেন্ট শ্রমিক, ফেরিওয়ালা, চায়ের দোকানদার) হয়ে খাদ্য সমস্যায় আছে তাদের তালিকা প্রস্তুত করে খাদ্য সহায়তা প্রদান করার জন্য পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর, প্রতিটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ওয়ার্ড মেম্বার, বিত্তশালী, সংগঠন ও এনজিও কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সকলের প্রস্তুতকৃত তালিকা উপজেলা প্রশাসনের কাছে পাঠানোর অনুরোধ জানানো হয়েছে। সামগ্রিকভাবে সমন্বিত কার্যক্রম এ মুহূর্তে অত্যন্ত জরুরি হয়ে পড়েছে।

সভায় জানানো হয়, বর্তমান পরিস্থিতিতে উপজেলার প্রায় ১ হাজার ৭শ’ পরিবারের মধ্যে সরকারি বরাদ্দ থেকে ১৭ মেট্রিক টন চাল ও ১ লাখ ২০ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে। নতুন করে আরও ১ হাজার ৮শ’ কর্মহীন মানুষের জন্য ১৮ মেট্রিক টন চাল ও ৫০ হাজার টাকা এসেছে।

এদিকে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক সংগঠন ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। তবে এসব ত্রাণ সামগ্রী বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সকল মানুষ পাচ্ছেন না। এমনও হচ্ছে একই পরিবার চার-পাঁচবার করে ত্রাণ সামগ্রী পেয়েছেন। সেজন্য দ্বৈততা পরিহার করে অগ্রাধিকার তালিকা তৈরি করে ত্রাণ বিতরণ করার আহবান জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, কুলাউড়া পৌর মেয়র মো. শফি আলম ইউনুছ, কুলাউড়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ সৌম্য প্রদীপ ভট্টাচার্য সজল, ইয়াকুব তাজুল মহিলা ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এমদাদুল হক ভুট্টো, নবীন চন্দ্র সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আমির হোসেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. শিমুল আলী, কুলাউড়া পৌরসভার সচিব শরদিন্দু রায়সহ পৌরসভার সকল কাউন্সিলারবৃন্দ।

পরামর্শ সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, উপজেলা প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে শুক্রবার থেকে কুলাউড়া পৌর শহরে ২৫০০ কর্মহীন মানুষদের মধ্যে ( ৫ কেজি চাল, আধা কেজি ডাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি পেঁয়াজ, ১ কেজি লবণ, ৫’শ গ্রাম তেল) সামগ্রী বিতরণ করা হবে। এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

এদিকে ২৯ মার্চ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত একটি পত্রের মাধ্যমে জানানো হয়, কুলাউড়া পৌরসভাসহ উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে কৃষি শ্রমিকসহ অন্যান্য শ্রমজীবী উপকার ভোগীদের তালিকা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রস্তুত করে খাদ্য সহায়তা প্রদান করতে হবে। স্থানীয় পর্যায়ে বিত্তশালী ব্যক্তি, সংগঠন, এনজিও কোন খাদ্য সহায়তা প্রদান করলে তা স্থানীয় প্রশাসনের প্রস্তুতকৃত তালিকার সাথে সমন্বয় করতে হবে। এমনভাবে বিতরণ নিশ্চিত করতে হবে যাতে দ্বৈততা পরিহার করা যায় এবং কোন উপকার ভোগী যেন বাদ না পড়ে।

  •