পিযুষকে ইয়াবা দিতে গিয়ে ছাত্রলীগ কর্মী আটক

97

স্টাফ রিপোর্টাার

সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি পিযুষ কান্তি দে-কে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মাদক দিতে গিয়ে জাহেদ নামের এক ছাত্রলীগ কর্মী পুলিশের হাতে আটক হয়েছেন। যদিও পুলিশ বলছে জাহেদ নামের ওই ছেলেটি বখাটে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এলাকা থেকে তাকে আটক করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায়- ৬ মাস থেকে কারান্তরীন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা পিযুষ কান্তি দে পুলিশ হেফাজতে ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। রাত ৮টার দিকে জাহেদ নামের ওই ছাত্রলীগ ছেলেটি মাদক নিয়ে পিযুষ কান্তির কাছে গেলে দায়িত্বে থাকা কারারক্ষীরা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ উপস্থিত হয়ে তাকে আটক করে। এসময় তার কাছ থেকে ২ পিস বড় ইয়াবা, খোলা ১ বোতল ফেন্সিডিল ও ১ বোতল খোলা মদ উদ্ধার করে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেট কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম মিয়া বলেন, তিন ধরনের মাদকসহ জাহেদ নামের এক যুবককে ওসমানী হাসপাতাল থেকে আটক করা হয়েছে। সে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা পিযুষ কান্তি দে-কে মাদকগুলো দিতে গিয়েছিল বলে জানা গেছে।

এর আগে গত ১১ সেপ্টেম্বর সিলেট নগরীর মির্জাজাঙ্গাল এলাকায় তার আস্তানা ঘেরাও করে একটি বিদেশি রিভলবার, ২ রাউন্ড গুলি ও বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি পিযুষ কান্তি দে এবং তার তিন সহযোগীকে আটক করে র‍্যাব।

পিযুষ কান্তি দে’র বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, মারধরসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া নগরীর জিন্দাবাজার-লামাবাজার সড়কের মির্জাজাঙ্গালে আস্তানা গড়ে তুলে নিজের কর্মীবাহিনীর মাধ্যমে এসব অপকর্ম করে বলে অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধো

  •