কানাইঘাটের ৫ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ, এলাকা লকডাউন

23

কানাইঘাট প্রতিনিধি

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ায় সিলেট জেলাকে ইতিমধ্যে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। করোনাভাইরাস নিয়ে সারাদেশের ন্যায় কানাইঘাটের মানুষের মধ্যে উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে।

শনিবার (১১ এপ্রিল) উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে থানা পুলিশ যানবাহন চলাচল সীমিত করার জন্য চেকপোস্ট বসিয়ে লকডাউন করে দিয়েছে। তবে আশার কথা এখনও পর্যন্ত কানাইঘাটে কোন করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা সন্দেহে ৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হলেও ডাক্তারি রিপোর্টে দু’দফায় এই ৫ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তাদের কারো শরীরে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায় নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএইচও ডা. শেখ শরফুদ্দিন নাহিদ জানান, এ পর্যন্ত আমরা ৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে পাঠিয়েছিলাম। তারমধ্যে আগে দু’জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। শনিবার অপর ৩ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। হাসপাতালে যারা জ্বর, কাঁশি, সর্দি ও গলাব্যাথা নিয়ে চিকিৎসার জন্য আসছেন আমরা তাদের যথার্থ চিকিৎসা প্রদান করছি। করোনাভাইরাসের উপসর্গ রয়েছে এমন ৫ জনের নমুনা আমরা সংগ্রহ করেছিলাম। তাদের ডাক্তারি রিপোর্টে নেগেটিভ এসেছে। অর্থাৎ তারা কেউ করোনায় আক্রান্ত হননি।

এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ইতিমধ্যে করোনা আইসোলেশন ২টি বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছ, আরো ১৪টি বেড প্রস্তুত প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ বারিউল করিম খান জানিয়েছেন, আশার কথা যে কানাইঘাটে এখনও কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন সে ধরনের খবর পাওয়া যায়নি। তারপরও যেহেতু সারাদেশে করোনাভাইরাস দিন দিন ছড়িয়ে পড়েছে, সে আলোকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নতুন নির্মাণাধীন ভবনে আইসোলেশন বেডের সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি একটি বেসরকারি হাসপাতালে ৬টি বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। অবস্থা বিবেচনা করে উপজেলা বিভিন্ন স্থানে প্রয়োজনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আইসোলেশন বেড বাড়ানো হবে।

তবে তিনি বলেছেন, আমাদের পর্যাপ্ত পরিমাণ চিকিৎসা সামগ্রী নেই। সিলেট জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আমরা যদি সবাই সচেতন হই এবং সে আলোকে সরকারের সকল আদেশ মেনে চলার পাশাপাশি স্বাস্থ্য নির্দেশিকা মেনে চললে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থেকে আমরা রক্ষা পাবো।

নির্বাহী কর্মকর্তা বারিউল করিম খান আরো বলেন, এখন থেকে যারা অতি প্রয়োজনীয় ছাড়া লকডাউন অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা জুড়ে থানা পুলিশের উদ্যোগে লকডাউনের মাইকিং চলছে এবং হালকা যানবাহন চলাচলে কঠোর বাঁধা নিষেধ জারি করছে পুলিশ। আইন অমান্য করায় কিছু হালকা যানবাহনও আটক করেছে পুলিশ।ৃ

  •