সিলেটের ল্যাবে আরও একজন করোনা রোগী শনাক্ত

45

স্টাফ রিপোর্টার
সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে (পরীক্ষাগার) ৬ষ্ঠ দিনের পরীক্ষায় আরও এক নারীর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তার বাড়ি সুনামগঞ্জের সদর উপজেলায়।

বর্তমানে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি বিভাগে চিকিৎসাধীন ওই নারী গত ৫দিন আগে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে এসে ওসমানীতে ভর্তি হয়েছিলেন।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) সকালে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের ল্যাব সংশ্লিষ্ট একটি বিশ্বস্ত সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ওই সূত্র জানায়- ৬ষ্ঠ দিন মোট ৯১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। এর মধ্যে এক নারীর করোনা পজিটিভ এসেছে। এছাড়া নেগেটিভ এসেছে বাকিদের।

এদিকে সিলেটে করোনা রোগীদের জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতাল। কিন্তু করোনা আক্রান্ত ওই নারী ওসমানী হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি থাকায় বিপাকে পড়েছে সংশ্লিষ্টরা। এ অবস্থায় তার সংস্পর্শে আসা চিকিৎসক ও নার্সদের কোয়ারেন্টাইনে নেয়ার চিন্তাভাবনা ওসমানী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সেই সাথে সংশ্লিষ্টদের কোয়ারেন্টাইন করে গাইনি বিভাগটাকে কিভাবে চালানো যায় সে বিষয়ে চিন্তিত তারা।

এছাড়া সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ওই রোগীর সংস্পর্শে আসা সবাইকে কোয়ারাইন্টাইনে নেয়ার চিন্তা করছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, সিলেটের সহকারি পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান।

এদিকে করোনা ভয়াবহতায় এগিয়ে গেছে সুনামগঞ্জ। এর আগে পঞ্চম দিনের পরীক্ষায় সুনামগঞ্জের আরও একজনের করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে। তার বাড়ি সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায়। এ দিয়ে সুনামগঞ্জ করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দুজন।

এর আগে ৭ এপ্রিল (মঙ্গলবার) সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি ও ভাইরোলোজি বিভাগে স্থাপিত করোনা ভাইরাস পরীক্ষার বিশেষায়িত পলিমার্স চেইন রিঅ্যাকশান (পিসিআর) ল্যাবে কোভিড-১৯ পরীক্ষা শুরু হয়।

প্রথম দিন ৯৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হলে সবকটি পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ আসে। পরে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনও ২৪ জনের করোনা সনাক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে এবং তৃতীয় দিনও ৪৮ এবং চতুর্থ দিনের ৪৮ রিপোর্টও রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তবে পঞ্চম দিন ৯৪ জনের মধ্যে একজন ও ৬ষ্ঠ দিনেও ৯১ জনের মধ্যে একজনের করোনা ভাইরাস ধরা পড়ে।

  •