ডা. মঈনের জন্য কেন উন্নত অ্যাম্বুলেন্স দেয়া হলো না, প্রশ্ন সুমনের

57

সবুজ সিলেট ডেস্ক
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দীন ও তার পরিবারের প্রতি গভীর শোক জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

তিনি বলেন, ‘ডাক্তার মঈন উদ্দীনের জন্য কেন একটি উন্নত অ্যাম্বুলেন্স দেয়া হলো না। তাকে কেন এয়ার এম্বুলেন্সে ঢাকা নেয়া হলো না সে বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।’

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল ) ব্যারিস্টার সুমনের ফেসবুক পেজে এক ভিডিও বার্তায় তিনি এই শোক প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, ‘করোনাযুদ্ধে প্রথম যিনি শহীদ হলেন, তিনি আমাদের সিলেটের ছাতকেরই কৃতী সন্তান। আপনারা জানেন যে, গতকাল (১৫ এপ্রিল) তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন। আমি প্রথমেই তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং তার পরিবার যেন এই শোক সইতে পারে সেই দোয়া করছি।’

সুমন বলেন, ‘আমি একজন সিলেটি হিসেবে গর্ববোধ করছি যে, তিনি করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন এবং প্রথম শহীদ হয়েছেন।’

সুপ্রিম কোর্টের এ আইনজীবী বলেন, ‘ডা. মঈন উদ্দীন যে আত্মত্যাগ করে গেছেন তাতে বাংলাদেশের ইতিহাসে তার নাম স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। করোনা ইস্যুতে ডাক্তারদের যে ইতিবাচক ভূমিকা তা স্মরণীয় হয়ে থাকবে।’

তিনি বলেন, ‘একই সঙ্গে আরও যে ডাক্তার আছেন এবং এই করোনা ইস্যুতে মানুষকে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তাদের প্রতিও আমার অনেক বেশি কৃতজ্ঞতা থাকবে। আমার বিশ্বাস আমরা এই করোনা মহামারির এই যুদ্ধে হারব না।’

ব্যারিস্টার সুমন আক্ষেপ করে বলেন, ‘ডা. মঈন উদ্দীনের চিকিৎসার জন্য কেন একটি উন্নত অ্যাম্বুলেন্স দেয়া হলো না। তাকে কেন এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা নেয়া হলো না সে বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। আমি কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাই, এমন ঘটনা কেন ঘটল। করোনার এই সময়ে আর কোনো ডাক্তারের ব্যাপারে যেন আমাদের এমন কথা শুনতে না হয় আমরা সে আশাটুকু করতেই পারি। কারণ করোনা ইস্যুতে যারা প্রকৃত যোদ্ধা তাদের যদি আমরা সম্মান দেখাতে না পারি তাহলে কোনো প্রকৃত যোদ্ধার জন্ম এ দেশে হবে না।’

সিলেটবাসীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘আমি সবসময় একটা কথা বলি যে, আপনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধ বলেন বা করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ বলেন, সে জায়গায় যদি আমরা সিলেটিরা সবার চেয়ে বড় ভূমিকা না রাখতে পারি এবং নিজেরা যদি আত্মত্যাগ করতে না পারি তাহলে আমরা অবশ্যই পিছিয়ে পড়ব।’

সুমন বলেন, ‘আমরা তো নিজেদের শাহজালালের উত্তরসূরি দাবি করি এবং সিলেটকে বলা হয় পুণ্যভূমি। হযরত শাহজালাল (র) কারণেই সিলেটকে পুণ্যভূমি আখ্যা দেয়া হয়। আমি মনে করি, নতুন বাংলাদেশ গড়ার জন্য অবশ্যই সিলেটিদেরকেই অবশ্যই বড় ভূমিকা রাখতে হবে।’

  •