সারা দেশে ৫ লাখ পরিবারকে খাদ্যসহায়তা দিয়েছে বিএনপি

11

সবুজ সিলেট ডেস্ক
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সঙ্কটে কর্মহীন দিনমজুর, শ্রমিক ও অসহায় মানুষের মাঝে সারা দেশে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছে বিএনপি এবং বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতারা। সময় পেলেই নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়া হচ্ছে গরিব মানুষের ঘরে। কেন্দ্রীয় ও তৃণমূলের নেতাকর্মীরা ত্রাণতৎপরতা অব্যাহত রেখেছেন। ইতোমধ্যে ঢাকা সহ সারা দেশে কমপক্ষে পাঁচ লাখ পরিবারকে খাদ্যসহায়তা দেয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, খাদ্য বিতরনের পাশাপাশি আমরা করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের বিষয়ে জনগণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য লিফলেট বিতরণ করেছি, তাদেরকে মাস্ক দিয়েছি। মনে রাখতে হবে আমরা বিরোধী দল। তবুও আমাদের দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ২৪ মার্চ বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে নিরাপদে থেকে দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়ানোর আহ্বান জানানোর সাথে সাথে আমরা প্রতিটি জেলা, উপজেলায় কাজ করছি। ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ড্যাব (ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) ও জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন কাজ করে যাচ্ছে সর্বক্ষণ। সিলেটের প্রায় ৭০ হাজার পরিবারে খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা মহানগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে আমাদের দলের নেতাকর্মীরা খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে। আমাদের যারা প্রার্থী, মন্ত্রী ও এমপি ছিলেন তারা স্ব-উদ্যোগে তাদের এলাকাগুলোতে দুস্থ মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরন করেছেন। আমার ধারণা, সারা দেশে কমপক্ষে ৫ লাখ পরিবারের কাছে আমাদের সাহায্য এরই মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। এটা চলমান এবং অব্যাহত থাকবে। এত কিছুর পরও দুর্ভাগ্য আমাদের তথ্যমন্ত্রী সেগুলো দেখেন না। তিনি এবং আওয়ামী লীগের লোকেরা বলে যাচ্ছেন যে, আমরা কোনো কাজ না করেই শুধু কথাই বলছি। এটা একেবারেই সত্য নয়।
এ দিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় দফতর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছেÑ ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের তত্ত্বাবধানে জেলা বিএনপির সভাপতি মো: তৈমুর রহমান, সেক্রেটারি মির্জা ফয়সাল আমিন, বিএনপি নেতা ওবায়দুল্লাহ মাসুদ ত্রাণ বিতরণ করেন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের তত্ত্বাবধানে কুমিল্লার দাউদকান্দি, মেঘনা ও তিতাসে, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাসের উদ্যোগে মতিঝিল, পল্টন, শাহজাহানপুর, খিলগাঁও, সবুজবাগ এলাকায় দুস্থ পরিবারগুলোকে ত্রাণ দেয়া হয়েছে। গয়েশ^র চন্দ্র রায়ের তত্ত্বাবধানে বিএনপি নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুণ রায় কেরানীগঞ্জ দক্ষিণে ৭ হাজার পরিবারকে, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খানের তত্ত্বাবধানে নরসিংদীর পলাশে, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকনের নেতৃত্বে নরসিংদী সদর, স্বেচ্ছাসেবক দলের সেক্রেটারি আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েলের উদ্যোগে মনোহরদীতে, মনজুর এলাহী ও সুলতান মোল্লার নেতৃত্বে শিবপুরে ত্রাণ দেয়া হয়েছে। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনগুলোর উদ্যোগে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও ঢাকার বিভিন্ন স্থানে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন। কুমিল্লার মুরাদনগরে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান কাজী শাহ মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদের সহযোগিতায়, ভাইস চেয়ারম্যান মো: শাহজাহানের তত্ত্বাবধানে নোয়াখালী সদর উপজেলা, পৌরসভা ও সুবর্ণচর এলাকায়, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানির তত্ত্বাবধানে লক্ষীপুরের বিভিন্ন এলাকায় ত্রাণ কার্যক্রম চলছে। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপুর উদ্যোগে এবং লৌহজংয়ে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, বিএনপি নেতা শাহজাহান খান, বাদল হাওলাদার, হাবিবুর রহমান চাকলাদার, আতাউর রহমান, ওমর ফারুক, আনিসুর রহমান শিকদার, বাবুল ঢালী ও আব্দুল লতিফ পৃথকভাবে ত্রাণ বিতরণ করছেন। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ডাঃ জাহিদ হোসেনের পক্ষে ময়মনসিংহ মহানগর এবং দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ, বিরামপুর, ঘোড়াঘাট, হাকিমপুরে, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সের উদ্যোগে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট ও ধোবাউড়ায়, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে নজরুল ইসলাম আজাদ ও আড়াইহাজারে মাহমুদুর রহমান সুমনের নেতৃত্বে ত্রাণ দেয়া হয়েছে। মাদারীপুরের শিবচরে উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইয়াজ্জেম হোসেন রোমানের উদ্যোগে ৪০০ বস্তা চাল বিতরণ চলছে। নেত্রকোনা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক ডা: মো: আনোয়ারুল হকের উদ্যোগে সদর ও পৌর এবং উপজেলা এলাকায়, বিএনপির কেন্দ্রীয় আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব ড. রফিক হিলালীর উদ্যোগে নিজ এলাকার নি¤œআয়ের মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ চলছে। কিশোরগঞ্জে জেলা বিএনপির সভাপতি শরীফুল আলমের উদ্যোগে ভৈরব, কুলিয়ারচর উপজেলা ও পৌর এলাকায় ৮ হাজার পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী ও বিভিন্ন উপকরণ এবং সাংবাদিকদের মাঝে পিপিই দেয়া হয়েছে। মানিকগঞ্জে জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আফরোজা খান রিতা, বিএনপি নেতা এসএ কবির জিন্নাহ প্রমুখ জেলার বিভিন্ন স্থানে এবং ময়মনসিংহের নান্দাইলে মামুন বিন আব্দুল মান্নানের উদ্যাগে দুস্থ মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। দেশের প্রায় সব জেলা ও উপজেলায় স্থানীয় বিএনপির উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে বলে জানান বিএনপির সহ দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু।

  •