রাজশাহী মেডিকেলের ৪২ চিকিৎসক, নার্স, কর্মচারী কোয়ারেন্টিনে

17

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক ব্যক্তির সংস্পর্শে যাওয়ার কারণে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪২ চিকিৎসক, নার্স ও সহায়ক কর্মচারীকে আজ মঙ্গলবার কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। একই কারণে রাজশাহী মেডিকলে কলেজ হাসপাতালের নিয়মিত সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে।

এই প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনো রোগী রাজশাহীতে সরাসরি হাসপাতালে এলেন। এর আগে শুধু নমুনা নিয়ে আসা হয়েছে। হাসপাতালের উপপরিচালক সাইফুল ফেরদৌস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার জেলার বাঘা উপজেলা থেকে ৮০ বছর বয়সী এক ব্যক্তি জ্বর ও প্রস্রাবের যন্ত্রণার কথা বলে হাসপাতালে ভর্তি হন। এই রোগীর এক্স-রে করার পর চিকিৎসকদের সন্দেহ হয়। তখন তাঁকে হাসপাতালের করোনা পর্যবেক্ষণ ইউনিটে নেওয়া হয়। রোববার তাঁর নমুনা সংগ্রহ করা হয়। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজের করোনা ল্যাবে তাঁর নমুনা পরীক্ষায় জানা যায়, তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। রাতেই তাঁকে রাজশাহী সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালে প্রস্তুত আইসোলেশন ইউনিটে পাঠানো হয়।

আজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেয়, এই রোগীর চিকিৎসা প্রক্রিয়ায় যাঁরা তাঁর সংস্পর্শে গেছেন, সবাইকে কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হবে। কর্তৃপক্ষের হিসাব অনুযায়ী, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি ও ক্যাজুয়াল্টি বিভাগ এবং করোনা পর্যবেক্ষণ ইউনিট, রেডিওলজি বিভাগে দায়িত্বরত ২১ জন চিকিৎসক, ১২ জন নার্স ও ৯ জন সহায়ক কর্মচারী এই রোগীর সংস্পর্শে আসেন। বুধ ও বৃহস্পতিবার পর্যায়ক্রমে তাঁদের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। কেউ করোনা পজিটিভ না হলে তাঁদের কর্মস্থলে ফেরানো হবে।

এই রোগী বর্তমানে আইসোলেশন ইউনিটে রয়েছেন। সেখানে যে চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীরা দায়িত্বে রয়েছেন, তাঁদেরও কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হবে। তবে নির্দেশনা অনুযায়ী যে দল সেখানে সাত দিন দায়িত্ব পালন করবে, তাদের পরবর্তী ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে রাখা হবে।

  •