যুক্তরাষ্ট্রে ১৯১ জন বাংলাদেশী সহ করোনায় জীবন হারালেন ৫২,১৮৫ জন মানুষ

32

কামরুজ্জামান হেলাল, যুক্তরাষ্ট্র:

আমেরিকায় করোনাভাইরাসে প্রাণহানি ৫২ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। আমেরিকার কোনো কোনো স্টেটে করোনায় আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা কমলেও সার্বিকভাবে এখনো আমেরিকায় করোনার ভয়ঙ্কর থাবা অব্যাহত রয়েছে। প্রতিদিন মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন এবং মৃত্যুরকোলে ঢলে পড়ছেন। একবিংশ শতাব্দিতে এসে মানুষ এমন অসহায়ভাবে মারা যাবে তা কারো কল্পনাও ছিলো না। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আমেরিকায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৯ লাখ ২৫ হাজার। যেভাবে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে তাতে কয়েক দিনের মধ্যেই ১০ লাখ ছাড়িয়ে যাবে। তবে আশার কথা হচ্ছে এক সময় আমেরিকায় এক থেকে দেড় লোক মারা যাবার কথা বলা হলেও মৃত্যের পরিমাণ আরো কম হতে পারে। অনেক বিশেষজ্ঞ মত প্রকাশ করে বলেছেন, ৬০ থেকে ৭৫ হাজার মানুষ প্রাণ হারাতে পারে। WorldOMeter এর তথ্য অনুযায়ী নিউইয়র্কে এ পর্যন্ত ২ লাখ ৭৭ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং প্রায় ২১ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। গত ২৪ ঘন্টায় নিউইয়র্কে ৪৩৮ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ৪০৩ জন এবং নার্সিং হোমে ৩৫ জন। মার্কিন প্রেসিডন্ট এবং নিউইয়র্ক সিটির গভর্নর এন্ড্রু কুমো মুসলিম সম্প্রদায়কে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এবং সবার সমৃদ্ধি কামনা করেছেন। করোনাভাইরাস সম্পর্কে বলেছেন, নিউইয়র্ক স্টেটে মৃত্যুর হার কমছে এবং রিকভারীর সংখ্যাও বাড়ছে। কিন্তু হাসপাতালে যাওয়ার সংখ্যা কমেনি। গত কয়েক দিনে প্রতিদিন প্রায় ১৩ থেকে ১৪ শত মানুষ হাসপাতালে যাচ্ছেন। এটা ভাল লক্ষণ নয়। তবে তিনি বলেন, পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং আমাদের পর্যাপ্ত সরাঞ্জামও রয়েছে। গত ২৪ ঘন্টা ছিলো বাংলাদেশী কম্যুনিটির জন্য স্বস্তির। কারণ গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় ১ জন বাংলাদেশী মারা গেছেন। এ পর্যন্ত করোনায় ১৯১ জন বাংলাদেশী মারা গেলেন। এ ছাড়া অন্যান্য রোগে জ্যামাইকার কাওরান বাজার সুপারমার্কের অন্যতম সত্বাধীকারি ইলিয়াস খানের শাশুড়ি জুবায়েদা খানম (৫৫) হার্ট এ্যাটাকে এবং মাওলানা শাফিউর রহমান বার্ধক্যজনিক কারণে ইন্তেকাল করেছেন(ইন্না লিল্লাহি…রাজিউন)। নিউইয়র্কের ওজনপার্কের বাসিন্দা মোহাম্মদ ইউছুপ আলী করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৩ এপ্রিল স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা ৩০ মিনিটে ব্রুকলীনের উডহল হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। জানা গেছে, তার দেশের বাড়ি বাংলাদেশের সদ্বীপের হারামিয়া দ্বৈত্যের বাড়ি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৫ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে, ১ মেয়েসহ আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে সন্দ্বীপ সোসাইটি শোক প্রকাশ করেছে।

  •