সিলেট নগরীতে ছাত্রলীগের ইফতার বিতরণেও মানা হয়নি ‘সামাজিক দূরত্ব’

32

স্টাফ রিপোর্টার
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দেশে চলছে অঘোষিত লকডাউন। লকডাউনের মধ্যেও জরুরি প্রয়োজনে যে কোন কার্যক্রম চালাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রতি কড়াকড়ি আরোপ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এমন পরিস্থিতি করোনায় অসহায় হয়ে পড়া মানুষকে নানা ভাবে সহযোগিতা করছেন অনেকেই।

সেই সহযোগিতায় বেছে নিয়েছেন নানা ব্যতিক্রমী কৌশল। লোক চক্ষুর আড়ালে এমন অহরহ দান চলছে নিয়মিত। সর্বোচ্চ খাদ্যসামগ্রী কিংবা নিজেদের ছবি দিয়ে অন্যদের দান করতে উদ্বোদ্ধ করা হলেও যারা এ সাহায্য পাচ্ছেন তারা থাকছেন ক্যামেরার আড়ালে। অথচ সিলেটে সরকারদলের ছাত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে দানের ক্ষেত্রে মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব।

বৃহস্পতিবার নগরীর সুবিদবাজারে শুরু হওয়া সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির উদ্যোগে ইফতার বিতরণেও দেখা গেলো বিশৃঙ্খলা। দেখা যায়, ইফতার বিতরণের সময় অনিয়ন্ত্রিত লোকসমাগম। মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম তুষারের ব্যবস্থাপনায় শুরু হওয়া এ কর্মসূচিতে রীতিমত হইহুল্লুড় ঘটে।

কোন ধরণের সামাজিক দূরত্বের বিষয় না মেনেই চলে ইফতার বিতরণ। একই সাথে চলে দলের কর্মীদের ফটোসেশন। আর অসহায় মানুষরা সামান্য ভালো খাবারের আশায় করোনার ঝুঁকি নিয়েও হাত বাড়াচ্ছেন। কেউ পাচ্ছেন আবার কেউ ধাক্কা ধাক্কির কারনে খালি হাতেই ফিরছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে নগরীর সুবিদবাজার পয়েন্ট এলাকায় এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ। প্রথম দিনে দেড়শতাধিক পথচারী রোজাদারদের মধ্যে ইফতার বিতরণ করা হয়।

এসময় আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদের আরও এগিয়ে আসতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে করোনা রোগের চিকিৎসা সুবিধা সম্প্রসারিত করা হচ্ছে। পাশাপাশি সারাদেশের দিনমজুর ও নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য মানবিক সহায়তা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তবে মধ্যবিত্ত অনেক মানুষ আছেন যারা কষ্টে থাকলেও বাইরে গিয়ে সাহায্য চাইতে পারছেন না। আমাদের উচিত তাদের খুঁজে বের করে সাহায্য পৌঁছে দেয়া।

তিনি করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্য সুরক্ষার সব নিয়ম-কানুন সঠিকভাবে পালনের বিষয়ে সজাগ থাকার আহ্বান জানান।

এতে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম তুষার, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক সায়েম আল মামুন, ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, ১৬নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সেবুল আহমদ সাগর, সুমন দাস, ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি সবুর রাহমদ দিপু, ছাত্রলীগ নেতা মনিরুল হক সাকিব, মুহিবুল হক শাওন, আকাশ দাস, জুমেল, জামেল, মাহবুব, এহিয়া, আশরাফুল, জাবেদ, হাবিব শাফাত প্রমুখ।

এদিকে, দেশে করোনা প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই সিলেটে দরিদ্র, অসহায় পাঁচ শতাধিক পরিবারের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেছে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ। এছাড়া মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয় গোপন রেখে মধ্যবিত্তদের বাড়িতেও খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে তারা।

উল্লেখ্য, ৩০ এপ্রিল দুপুরে ছাত্রলীগের একাংশের পক্ষ থেকে সবজি নগরীর তেলি হাওরে সবজি বিতরোন করা হলে সেখানেও মানা হয়নি কোন প্রকার সামাজিক দূরত্ব। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা হয়। দুপুরের সমালোচনা শেষ হতে না হতেই সন্ধ্যায় আবারো একই ঘটনা সিলেট নগরের সচেতনমহলে সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।

  •