দীর্ঘ সময় পর বাড়ির বাইরে স্প্যানিশরা

13

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে লকডাউনে শিথিলতা আনায় সাত সপ্তাহ পর স্পেনের পূর্ণ-বয়স্করা প্রথমবারের মতো বাড়ির বাইরে শরীর চর্চার অনুমতি পেয়েছেন। দীর্ঘদিন পর শনিবার দেশটির রাস্তায় মানুষকে প্রাতঃভ্রমণ, পায়চারী এবং সাইক্লিং করার অনুমতি দেয়া হয়েছে। এই অনুমতির পর করোনায় মৃত্যুপুরীতে পরিণত হওয়া স্পেনে ফিরেছে প্রাণ চাঞ্চল্য।বয়স্কদের বাড়ির বাইরে শরীর চর্চার অনুমতি দেয়ার এক সপ্তাহ আগে শিশুদের বিধি-নিষেধে শিথিলতা আনা হয়। করোনায় বিপর্যস্ত স্পেনের শিশুরা প্রত্যেকদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টার মধ্যে এক ঘণ্টার জন্য বাড়ির বাইরে বেরোনোর অনুমতি পেয়েছে।
করোনাভাইরাসে বিশ্বে যে কয়েকটি দেশ সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে স্পেন তাদের অন্যতম। ইউরোপের এই দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ১৬ হাজারের বেশি; প্রাণ গেছে ২৫ হাজার ১০০ জনের বেশি মানুষের। গত ২৪ ঘণ্টায় এই মৃত্যুর তালিকায় যুক্ত হয়েছেন ২৭৬ জন।
করোনার ভয়াল থাবার বিস্তার ঠেকাতে মার্চে দেশটিতে কঠোর লকডাউন জারি করা হয়। এই সময় লোকজন শুধুমাত্র ওষুধ এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী কেনার জন্য বাড়ি থেকে বের হওয়ার অনুমতি পেতেন।
এছাড়া যাদের বাসা থেকে অফিস করার সুযোগ নেই, তারা অফিসে যেতে পারতেন। গত সপ্তাহ পর্যন্ত স্পেন ছিল ইউরোপের একমাত্র দেশ যেখানে শিশুদের বাড়ির বাইরে যাওয়ার অনুমতি ছিল না।
দেশটির অনেক এলাকায় শনিবারের সকালটি ছিল করোনা প্রাদুর্ভাব শুরুর আগের মতোই। শত শত মানুষ মানুষের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে রাস্তা-ঘাট; সকলেই মেনে চলেছেন সামাজিক দূরত্বের বিধি-নিষেধ। তবে রাস্তাঘাটে যানবাহন ছিল খুবই কম।
সূত্র: বিবিসি।