শিবগঞ্জে দুই দিন সড়ক অবরোধের পর গরিবদের ত্রাণ দিলো সিসিক

34

স্টাফ রিপোর্টার
সিলেট নগরের শিবগঞ্জে ২১ নং ওয়ার্ডের দরিদ্র জনগোষ্ঠী দুই দিন সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শনের পর অবশেষে ত্রাণ বিতরণ শুরু করলো সিসিক কর্তৃপক্ষ। মেয়রের উপস্থিতিতে আজ রবিবার বেলা ২টায় ২১ নং ওয়ার্ডের সোনারপাড়া এলাকায় গরিবদের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

এর আগে দুপুর আজ সাড়ে ১২টার দিকে ত্রাণের দাবিতে দ্বিতীয় দফা সিলেট নগরের শিবগঞ্জে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষেভ প্রদর্শন করেন দরিদ্র জনগোষ্ঠী। তারা সিলেট সিটি কর্পোরেশরেন ২১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা বলে জানা গেছে। রবিবার (৩ মে) দুপুরে প্রায় এক ঘণ্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে তারা। পরে সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও ২০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদের আশ্বাসে তারা অবরোধ তুলে নেন।

জানা গেছে, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২১নং ওয়ার্ডে ত্রাণ না পেয়ে আজ রবিবার (৩ মে) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে নগরের শিবগঞ্জ পয়েন্টে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শতাধিক দরিদ্র মানুষ। তারা গত শুক্রবারও (১ মে) এভাবে সড়ক অবরোধ করে। তাদের দাবি- অন্যান্য ওয়ার্ডে করা হলেও ২১ নং ওয়ার্ডে কোনো ত্রাণ বিতরণ করা হয়নি। তাই তারা পেটের জ্বালায় রাস্তায় নেমে এসেছেন। তাদের ঘরে খাবার নাই।

এদিকে, আজ বিক্ষোভের খবর পেয়ে শিবগঞ্জে ছুটে যান সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও ২০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ। তাদের আশ্বাসের ভিত্তিতে বিক্ষোভকারীরা অবরোধ তুলে নেয়।
তবে এর আগে শুক্রবারও এভাবে বিক্ষোভ করে ২১ নং ওয়ার্ডের গরিবরা। খবর পেয়ে সোয়া ৪টার দিকে শিবগঞ্জে ছুটে যান সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। গিয়ে তিনি বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কথা বলেন। তাদের দাবি দাওয়া পুরণের আশ্বাস প্রদান করেন। আজ রবিববার মেয়র নিজে উপস্থিত থেকে ত্রাণ বিতরণের আশ্বাস দিলে বিক্ষোভকারীরা অবরোধ তুলে নেন সেদিন। কিন্তু আজ দুপুর পর্যন্ত ত্রাণ বিতরণ না করায় তারা আবারও রাস্তায় নেমে পড়েন। এসময় ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুর রকিব তুহিনের বিরুদ্ধে নানা স্লোগান দেন বিক্ষোভকারীরা।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ- তারা না খেয়ে মরতে বসেছেন। সরকারের পক্ষ থেকে ত্রাণ আসলেও এই ওয়ার্ডের অসহায়রা ত্রাণ পাচ্ছেন না। রেশন কার্ডেও তাদের নাম দেওয়া হয়নি।

এসব বিষয়ে জানতে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. আব্দুর রকিব তুহিনকে কল করলে তিনি জানান, ২১ নং ওয়ার্ডে চাহিদার তোলনায় ত্রাণ কম। তাই সবাইকে দিতে পারছি না। আর এ সুযোগে কিছু অসহায় মানুষ ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন শুনেছি। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতেই আমরা এই মুহুর্তে (রবিবার বেলা আড়াইটায়) যাদের ঘরে খাবার নেই তাদের ঘরে আগে ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছি। পর্যায়ক্রমে সবাইকে বিতরণ করা হবে।