করোনায় সিলেট কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন ৪ জন

15

 


স্টাফ রিপোর্টার
করোনাভাইরাসের কারণে কারাগার থেকে কয়েদি কমানো শুরু করা হয়েছে। সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে দুই দিনে মুক্তি পেয়েছেন ৪ জন কয়েদি।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মো. মুজিবুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, গতকাল শনিবার সিলেট কেন্দ্রীয় কারগার থেকে ২ জন কয়েদিকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। আজ রবিবার মুক্তি পেয়েছেন আরো ২ জন। আর জরিমানা থাকায় মুক্তি পাননি ৩ জন কয়েদি। তাদের একেক জনের জরিমানা আছে ২ থেকে ১০ হাজারের মধ্যে। জরিমানা পরিশোধ করলেই কেবল মুক্তি পাবেন তারা।

এছাড়া মুক্তি পাওয়ার তালিকায় নাম থাকলেও আরেকজন কয়েদি নিয়মতান্ত্রিকভাবে খালাস পেয়েছেন কয়দিন আগে।

কারা সূত্রে জানা গেছে, যারা মুক্তি পেয়েছেন তাদের সাজার মেয়াদ ছিল ৬ মাস থেকে ১ এক বছর।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা ৬২৭ জন বন্দিকে মুক্তি দেয়ার জন্য তালিকা পাঠানো হয়েছিল কিছু দিন আগে। এসব বন্দিকে মুক্তি দিতে একটি প্রস্তাব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠায় কারা কর্তৃপক্ষ। মন্ত্রণালয় পর্যায়ক্রমে মুক্তি দেয়া শুরু করেছে। প্রথম দফায় সিলেট কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন ৪ জন।

কারা সূত্র জানিয়েছে, যে ৬২৭ জন বন্দির তালিকা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে, তাদের মধ্যে লঘু অপরাধে দণ্ডিত, চলাফেরায় অক্ষম, কম মেয়াদের সাজাপ্রাপ্ত, সাজার দুই-তৃতীয়াংশ ভোগ করেছেন এমন বন্দি ছাড়াও দীর্ঘদিন ধরে কারাভোগ করা যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত বন্দিরাও রয়েছেন।

সিলেটের কারাগারে বন্দি যে ৬২৭ জনকে মুক্তি দেওয়ার তালিকা পাঠানো হয়েছিল তাদের মধ্যে ৫৬৯ ধারার বন্দি আছেন ৬৮ জন, অচল অক্ষম ৮ জন, ছয় মাসের সাজাপ্রাপ্ত ৪৯ জন, এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত ১৬ জন, লঘু অপরাধের বন্দি ২২ জন।

সূত্র আরো জানায়, তালিকায় সাজার ছয় মাস অবশিষ্ট আছে এমন বন্দি ৭ জন, সাজার দুই-তৃতীয়াংশ ভোগ করেছেন এমন বন্দি ১০১ জন আছেন। এছাড়াও যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত বন্দি রয়েছেন ৩৫৬ জন।

  •