শ্রীমঙ্গলে করোনায় আক্রান্তকে দেখতে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে ভায়রা

5

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ভায়রাকে (স্ত্রীর বোনের স্বামী) দেখতে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে যেতে হলো এক ব্যক্তিকে। ঘটনাটি ঘটেছে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সদর ইউনিয়নে।

ঘটনাটি রোববার (৩ মে) মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সদর ইউনিয়নে ঘটেছে বলে সিলেটটুডে টোয়েন্টিফোরকে নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়িতে যাওয়া ওই ব্যক্তিতে তাৎক্ষনিকভাবে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন মানার নির্দেশ দেওয়া হয়।

তিনি জানান, করোনা আক্রান্ত রোগীকে দেখতে যাওয়া ওই ব্যক্তি নমুনা আগামীকাল সংগ্রহ করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে পাঠানো হবে, পরে রিপোর্ট আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানা যায়, গত ১ মে শ্রীমঙ্গলের সদর ইউনিয়নের একজন বাসিন্দা ও একটি বেসরকারি ব্যাংকের নিরাপত্তাকর্মী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন। সেদিনই ওই ব্যক্তির বাড়ি লকডাউন করে উপজেলা প্রশাসন এবং আক্রান্ত ব্যক্তিকে তার নিজের বাড়িতেই আইসোলেশনে রাখা হয়। সেই লকডাউন ভেঙ্গেই নিজের অসুস্থ ভায়রাকে দেখতে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে যেতে হয়েছে এক ব্যক্তিকে। করোনা আক্রান্ত রোগীকে দেখতে যাওয়া ওই ব্যক্তির বাড়ি শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালাপুর ইউনিয়নে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা এরকম ঘটনা কখনোই আশা করিনি। আমরা এত প্রচার প্রচারণা করছি মানুষকে সচেতন হওয়ার জন্য সেখানে এরকম একটি ঘটনা খুবই দুঃখজনক। কোন রোগী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে তাকে দেখাশোনা করার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তাররা আছেন, অন্যান্য সহযোগিতার জন্য পুরো প্রশাসন আছে সেখানে একজন আক্রান্ত রোগীকে দেখতে এসে নিজেই উনি ঝুঁকির মধ্যে পরলেন।’