দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতার ১৯ রেশন ডিলার, শোকজ ২৭১ জনকে

10

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
রাজ্য জুড়ে রেশন দুর্নীতি নিয়ে লাগাতার অভিযোগ ওঠায় কড়া পদক্ষেপ নিল নবান্ন। গ্রেফতার করা হল ১৯ রেশন ডিলারকে। শোকজ করা হয়েছে ২৭১ জনকে।

লকডাউনের সময় রেশন ব্যবস্থা নিয়ে দুর্নীতি হচ্ছে বলে প্রথম থেকেই অভিযোগ করছে বিরোধী দলগুলি। বিশেষ করে বিজেপি বারবার অভিযোগ করে যে বহু জায়গায়, রেশন দোকানের পরিবর্তে তৃণমূলের স্থানীয় কার্যালয় থেকে চাল-গম (রেশনের) বিলি হচ্ছে।

বারবার অভিযোগ ওঠায় নিজেও বিরক্ত হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মন্ত্রিসভার বৈঠকে এনিয়ে খাদ্যমন্ত্রীকে ধমক দেওয়া ছাড়াও খাদ্য সচিবের পদ থেকে মনোজ আগরওয়ালকে সরিয়ে দেন। কিন্তু তারপরও রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় রেশন নিয়ে গন্ডগোল হওয়ায় ২৭১ জন রেশন ডিলারকে শোকজ করা হল শনিবার। দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে ১৯ জনকে। সেইসঙ্গে ফুড কমিশনারকে তলব করেছেন মুখ‍্যসচিব।

যেসব জায়গায় রেশন দেওয়া নিয়ে ঝামেলা চলছে, সেসব জায়গায় এখন রেশন দেওয়া হবে না বলেই জানানো হয়েছে।

তবে রাজ্যের দাবি, তিন মাসের জন‍্য (এপ্রিল,মে,জুন) ৯ লাখ মেট্রিক টন এর জায়গায় এখনও পর্যন্ত মাত্র ৩ লাখ মেট্রিক টন চাল পেয়েছে রাজ‍্য। এদিকে ডাল প্রয়োজন প্রতি মাসে সাড়ে ১৪ হাজার মেট্রিক টন। এর মধ‍্যে এখনও পাওয়া গিয়েছে মাত্র ৪ হাজার মেট্রিক টন।

রাজ‍্যে জাতীয় খাদ‍্য সুরক্ষার আওতাধীন বেনিফিশিয়ারির সংখ‍্যা ৬ কোটি ১ লক্ষ। কেন্দ্র ও রাজ‍্য মিলিয়ে মোট ১০ কেজি করে চাল পাওয়ার কথা। কিন্তু পরিমান মত চাল ডাল না পাওয়ায় রেশন ব‍্যবস্থা বিপর্যস্ত হচ্ছে বলেই অভিযোগ করেছে রাজ্য।

ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি রেশনে দোকানের লাইসেন্স বাতিল হয়েছে বলেও খাদ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। সূত্রের দাবি, যেখানে যেখানে রেশন ডিলারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে সেই সব জায়গায় আপাতত চাল-ডাল বিলির ব্যবস্থা সরাসরি খাদ্য দফতরের অফিসাররা সামলাবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।