অ্যান্টিবডি আবিষ্কার ইসরাইলের

11

সবুজ সিলেট ডেস্ক
করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে অ্যান্টিবডি আবিষ্কারের দাবি করেছে ইসরাইল। এ অ্যান্টিবডি করোনা চিকিৎসায় এ পর্যন্ত সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ আবিষ্কার বলে দাবি করছেন তারা।

সোমবার এক বিবৃতিতে ইসরাইলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নাফতালি বেনেট বলেন, একটিই ক্লোন বিশিষ্ট এই অ্যান্টিবডি তৈরি করেছে ইজরাইল ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিকাল রিসার্চ। করোনাভাইরাসের বাহকের শরীরে এই অ্যান্টিবডি প্রবেশ করালে, তা খুঁজে বের করে প্রতিহত করবে ভাইরাসকে।

ইসরাইল ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিকাল রিসার্চের ডিরেক্টর সুমেল সাপিরা বলছেন, এই অ্যান্টিবডি তৈরির ফর্মুলা তারা পেটেন্ট করছেন। এর পরে আন্তর্জাতিক কোনো সংস্থাকে এই অ্যন্টিবডি তৈরি করার বরাত দেওয়া হবে। ইসরাইলে করোনা গবেষণায় প্রথম থেকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে এই জাতীয় জৈব গবেষণা সংস্থা- ইজরাইল ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিকাল রিসার্চ। করোনা থেকে আরোগ্য লাভ করা রোগীর শরীরের রক্ত পরীক্ষা, ভ্য়াকসিন অনুসন্ধান, পাশাপাশি চালিয়ে গিয়েছেন সংস্থার গবেষকরা।

সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এই এক কোশ বিশিষ্ট প্রোটিনটি প্রাথমিকভাবে তৈরি হয়েছে করোনা থেকে সেরে ওঠা রোগীর একটি কোশ থেকে। ফলে এর শক্তি বহু কোশ বিশিষ্ট অ্যান্টিবডির থেকে অনেক গুণ বেশি।

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণ রুখতে প্রথম থেকেই অতি তৎপরতা দেখিয়েছে ইসরাইল। প্রথম আন্তর্জাতিক সীমান্ত বন্ধ করেছে তারাই। বন্ধ হয়েছে অভ্যন্তরীণ অবাধ যাতায়াতও। এই পর্যন্ত ইসরাইলে করোনা রোগীর সংখ্যা ১৬ হাজার ২৪৫। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২৩৫ জনের।

  •