হবিগঞ্জের সাথে পাল্লা দিয়ে সিলেটে বাড়ছেই করোনা

39

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসের এক মাস ৫ দিন চলছে আজ। অর্থাৎ ৩৫ দিন আগে সিলেটে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছিল। এই সময়ের মধ্যে বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭৯ জনে। যেটা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক বলে মনে করছেন স্বাস্থ্য বিভাগের সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, গেল ৫ এপ্রিল সিলেটে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। ওই দিন সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিনের শরীরে ধরা পড়ে করোনা। একই দিনে মৌলভীবাজারের রাজনগরের মারা যাওয়া এক ব্যক্তির শরীরেও পাওয়া যায় করোনার অস্তিত্ব। ৪ এপ্রিল করোনার উপসর্গ নিয়ে ওই ব্যক্তি মারা যান নিজ বাড়িতে। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মারা যাওয়া ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহের পর ৫ এপ্রিল জানানো হয় তার শরীরে ছিল করোনাভাইরাস।

আর ১১ এপ্রিল হবিগঞ্জ জেলায় নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা এক ট্রাক চালকের শরীরে পাওয়া যায় এ ভাইরাস। এরপর সুনামগঞ্জের ২ নারীর শরীরে করোনার অস্তিত্ব ধরা পড়ার পর এখন প্রতিদিন বেড়েই চলছে মহামারি এ ভাইরাস।

রবিবার রাত ৯টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সিলেট বিভাগে ২৭৯ জন করোনা রোগী পাওয়া গেছে। বিভাগের মধ্যে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ করোনা রোগী পাওয়া গেছে হবিগঞ্জ জেলায়। আর দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সিলেট জেলা। সবচেয়ে কম রোগী পাওয়া গেছে মৌলভীবাজার জেলায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় অফিসের সহকারি পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান জানান, হবিগঞ্জ জেলায় ৯৩ জন, সিলেটে ৮৬, সুনামগঞ্জে ৬০ ও মৌলভীবাজার জেলায় ৪০ জন করোনা রোগী পাওয়া গেছে।

  •