যুক্তরাজ্যে করোনায় এক লাখ মৃত্যুর শঙ্কা

7

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
লকডাউন শিথিল করা হলে যুক্তরাজ্যে চলতি বছরের শেষ নাগাদ করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে দেশটির সরকারের বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টারা সতর্ক করে দিয়েছেন। করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা গত কয়েকদিন ধরে কমে আসায় ব্রিটেনে লকডাউন শিথিলের বিষয়ে নানা আলোচনার মাঝে এই সতর্কবার্তা দিলেন বিজ্ঞানীরা।

সানডে টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্ভাব্য এই মৃত্যুর ব্যাপারে গত সপ্তাহে সরকারকে সতর্ক করে দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক বিজ্ঞানী বলেছেন, এই মৃত্যু ঠেকানোর উপায় খুবই সীমিত।

এদিকে, রোববার স্থানীয সময় সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেয়ার কথা রয়েছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের। লকডাউনের বিধি-নিষেধ শিথিলের ব্যাপারে একটি পরিকল্পনা তিনি প্রকাশ করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তার ভাষণের বিষয়ে এখনও বিস্তারিত না জানা গেলেও বিবিসি বলছে, বরিস জনসন করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের জন্য অ্যালার্ট সিস্টেম চালুর ঘোষণা দিতে পারেন।

এছাড়া বর্তমানে দেশটির সরকারি স্লোগান ‘বাড়িতে থাকুন, ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসকে রক্ষা করুন’ পরিবর্তন করে নতুন স্লোগান ‘সতর্ক থাকুন, ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করুন, জীবন বাঁচান’ চালু করতে পারেন।

এদিকে, পরীক্ষার চাপ সামলানোর সক্ষমতার অভাবে গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে অন্তত ৫০ হাজার নমুনা পাঠানো হয় বলে দেশটির সরকার স্বীকার করেছে। যুক্তরাজ্যের ল্যাবগুলোতে সমস্যা দেখা দেয়ায় গত সপ্তাহে এসব নমুনা যুক্তরাষ্ট্রে পরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

ব্রিটেনের স্বাস্থ্যবিভাগ বলছে, ল্যাব সমস্যার কারণে পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য ৫০ হাজার নমুনা যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো হয়েছিল। করোনায় মৃত্যুতে ইউরোপের সব দেশকে ছাড়িয়ে গেছে ব্রিটেন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে মারা গেছেন ৩১ হাজার ৫৮৭ এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ১৫ হাজার ২৬০ জন।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনা প্রাণ কেড়েছে ২ লাখ ৮১ হাজার ৭৮ জনের। বিশ্বের দুই শতাধিক দেশে ৪১ লাখ ৩২ হাজার ৯৫৩ জনের শরীরে বেঁধেছে বাসা। তবে ইতোমধ্যে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৪ লাক ৫৫ হাজার ৪৮৯ জন।

  •