সিলেটের তিন হাসপাতালে যোগ দিচ্ছেন ১৮৪ জন নার্স

20

স্টাফ রিপোর্টার::
করোনা রোগীদের সেবায় পাঁচ হাজার ৫৪ জন নার্সকে সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে দেশের বিভিন্ন কোভিট-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতালে পদায়নের জন্য সাময়িকভাবে নিয়োগ দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।
এরমধ্যে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৩৯ জন, মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা জেলা সদর হাসপাতালে ২২ জন এবং হবিগঞ্জের ২৫০ শয্যা জেলা সদর হাসপাতালে ২৩ জনকে পদায়ন করা হয়েছে। তবে সুনামগঞ্জে কাউকে পদায়ন করা হয়নি।
গত সোমবার (১১ মে) নিজ নিজ কর্মস্থলে যোগদান করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. মাইদুল ইদলাম প্রধান।নিয়োগ প্রাপ্তদের মধ্যে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সুলতান মোহাম্মদ সুলেমান, সৌরভ দাশ তুষার, জান্নাতুল ফেরদৌস, জিয়াউর রহমান, শাহরিন শাহরিয়া, জহুরুল ইসলাম, মোছা. হাসি আক্তার, মোছা. ফারহানা ফেরদৌস, রঞ্জিতা রানী সাহা, ইফফাত আরা হোসনে, মো. তাজমহলো মিয়া, লাকী বেগম, ইয়াহিসা হোসেন, এনায়েত আল আমিন, সেলিনা আক্তার, মো. জামাল হোসাইন, কুলছুমা বেগম, রুনা রানী দাশ, সুপ্তা চক্রবর্তী, শিরিন আক্তার, আমিনা, সুলতানা বেগম, চৈতী আচার্য্য, সখিনা আক্তার, রিমা আক্তার, শাহজান আক্তার খান, ফাতেমা বেগম, মো. মাহবুবুর রহমান, ইমাম হোসেন, শামীমা জান্নাত, আফরুজা আকতার, মো. রিয়াজ উদ্দিন, মরিয়ম আক্তার, মাহবুব উদ্দিন সানি, সাকেরা ইয়াসমিন, দিলু তালুকদার, খালদা কাওসার, আলি হোসেন, রনি আচার্য্য, শম্পা দাশ, বিলকিস বেগম, সংগীতা, সাবিহা বেগম, মো. রাকিবুল ইসলাম, তনয় কুমার সাহা, শ্রাবন্তি দাস, দিলরুবা আক্তার ইমরানা বেগম, স্বপ্না বাড়ৈ, জুমা রাণী দাস, নাসিমা আক্তার ডলি, ধীমান চক্রবর্তী, সাঈদা হাফসা খাতুন, মো. আলী আশরাফ কামরুল, সাদিয়া সুলতানা, মো. রেজাউল করিম, চম্পা রানী বিশ্বাস, স্নিগ্ধা চক্রবরেটি, ফারিদা পারভিন, লুৎফা বেগম, মোছা. শাহানা খাতুন, মোছা. পর্বি জোসনা, মোছা. নাসিমা আক্তার, রায়কেয়া বেগম, মুসা করিমার বেগম, ফারজানা খানম, শ্রীমতি প্রীতি চৌধুরী, কুলসুমা বেগম, মোছা. আয়েশা সিদ্দিকা, রুবি বেগম, মোহাম্মদ নাজমুল নায়েম, জেবিন বেগম, লিজা বেগম, তাসলিমা বেগম, নাসরিন আক্তার, কোহিনর আক্তার মলি, রুমা আক্তার, মিস নাজমা বেগম, ফারহানা বেগম চৌ, সাফিয়া আক্তার মনি, শিমা রানী দাস, নাজমা খাতুন, মো. জুয়েল আহমদ, শাহেদা আক্তার, রোমেনা বেগম, মোছা. আজাজুন নাহার, মোছা. ঝর্ণা আক্তার, খাদিজা আক্তার, রমিজা আক্তার, রুফিয়া আক্তার, ফখরুল হাসান, মোছা. আলিমা খাতুন, মান্না আকতার, ইলিয়াস আহমেদ, শারমিন জান্নাত, সুপর্ণা রানী বিশ্বাস, মরজিনা আক্তার, রোজিনা বেগম বুরবুইয়া, সাঈদা মাদারী, শান্তা আক্তার, মোছা. জুলি আক্তার জলি, অঞ্জনা রানী বর্মণ, সিমা রানী শীল, জাহানারা, রুমেল আহমেদ, দিলরুবা আক্তার, অনুপ চন্দ্রা চন্দ্র, শেলি বর্মণ, আকলিমা সুলতানা, সুভিয়া ইয়াছমিন, সাঈদা সোলেমা সরকার, ইরিনা আক্তার সুরভী, শাকিলা আক্তার, রায়হাতুল জান্নাত হাবিবা, সুমি বেগম, মেবিনা খাতুন, তৃপ্তি রানী দাস, রেশমা বেগম, কিরণ ভৌমিক তুর্য, তারজিনা বেগম, মো. শাহিন মিয়া, মিনহাজ উদ্দিন, মো. আবদুল কুদ্দুস সাহেদ, প্রিয় লক্ষী রায়, মোসাম্মৎ সাদেকা সুলতানা, খাদিজা খাতুন, মো. মোস্তাক মাসুদ, নুপুর দত্ত, সুমি রানী দাস, মোছা. নাসরিনা আকতার, আবদুর রহমান, রাজিয়া আক্তার, লাকী বেগম, নাদিরা আক্তার, রুমানা আক্তার, শিরিনা বেগম, সেতারা বেগম, ঝিলি ধর, শাম্মি দাস, মুহাম্মদ রাসেল মিয়াকে পদায়ন করা হয়।
আর মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা জেলা সদর হাসপাতালে প্রেমা দেবনাথ, মোছা. শামিয়াতুন নেসা, মিতালী রানী দাস, সৈয়দা তৈয়ফিকনাহার, জাহানারা বেগম, লিপি রানী দাস, সুবর্ণা দত্ত, নিবেদিত রায়, স্নিগ্ধা রানী সরকার, অর্পা আষ্টমী পিরুগু, সাবিনা আক্তার, শায়লা নাজনীন কেয়া, মোছা. আমেনা বেগম, সালমা আক্তার, ফাতেমা আখতার আলি, মোসলেমা আক্তার, সাথি আক্তার, কলি পাল, চাঁদনি আচার্য্য, অর্পন মালাকার, তাহমিনা আক্তার, মো. সারোয়ার হোসাইনকে পদায়ন করা হয়।
অন্যদিকে হবিগঞ্জের ২৫০ শয্যা জেলা সদর হাসপাতালে রাবেয়া আবেদীন নিপু, হাসনা আলম অমি, মোছা. সাফিয়া খাতুন, শেখ শারমিন লিপি, মোছা. কুলসুমা খাতুন, শামীমা আক্তার, শ্রাবণী রানী দাশ, ফাহমিদা আকতার, ডলি রানী ঘোষ, পপি রানী চন্দ, বাবলি পল, আজিদা বেগম, সুবর্ণা রানী পাল, সোনিয়া, রুনা বেগম, আসমা আক্তার, তাহমিনা, মোছা. ফরিদা বেগম, রাকিবা, রহিমা, তানজিনা পিয়াস, মো. নাজমুল ইসলাম, লাভলী আক্তারকে পদায়ন করা হয়েছে।
গত ২৫ এপ্রিল করোনা মোকাবিলায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে জনপ্রশাসন বরাবর দুই হাজার চিকিৎসক ও ছয় হাজার নার্সের জন্য চিঠি দেয়া হয়েছিল। তারই ধারাবাহিকতায় সরকারি কর্ম কমিশন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে সুপারিশকৃত নার্সের তালিকা থেকে এ পাঁচ হাজার ৫৪ জন নার্সকে সাময়িকভাবে পদায়ন করেছে।
প্রসঙ্গত, গত রোববার (১০ মে) সকাল পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২৭৯ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৮৬, সুনামগঞ্জে ৬০, হবিগঞ্জে ৯৩ এবং মৌলভীবাজার জেলায় ৪০ জন। অপরদিকে সিলেট বিভাগে করোনা জয় করে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ২৩ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৯, সুনামগঞ্জে ১৩ ও হবিগঞ্জে ১ জন। আর মারা গেছেন ৫ জন। এর মধ্যে সিলেটে ২, হবিগঞ্জে ১ ও মৌলভীবাজারে দুই জন।

  •