সিলেট ল্যাবএইডে বকেয়া ও বেতন না দিয়ে চাকরিচ্যুতির অভিযোগ

12

স্টাফ রিপোর্টার::
ডায়াগনস্টিক সেন্টার ল্যাবএইডের সিলেট শাখার বিরুদ্ধে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা না দিয়ে চাকরিচ্যুত করার অভিযোগ উঠেছে। প্রায় ৮০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বেতন-ভাতা না দিয়েই বিনা নোটিশে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠানো হয়েছে বলে ভুক্তভোগীদের অভিযোগ।
রোববার নগরীর কাজলশাহ এলাকায় অবস্থিত ল্যাবএইডের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। এ সময় তারা বকেয়া বেতন, ঈদ বোনাস প্রদান ও তাদের চাকরিচ্যুত না করার দাবি জানান।
অবস্থান কর্মসূচি পালনকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জানান, আমরা ৮০ জন স্টাফকে দুই মাসের বেতন না দিয়ে বিনা নোটিশে বাধ্যতামূলক চাকরিচ্যুত করেছে সিলেটের ল্যাবএইড কর্তৃপক্ষ। বারবার বেতন চেয়েও পাইনি, তারা নানা টালবাহানা করেন। আমরা পরিবার নিয়ে পথেবসতে চলেছি।
তারা জানান, সামনে ঈদ, সারা বছরই আমরা নিজেদের সুবিধা-অসুবিধাকে উপেক্ষা করে কর্তৃপক্ষের মর্জি মোতাবেক ডিউটি করি। কিন্তু এই করোনার দুঃসময়ে তারা আমাদের পাশে দাঁড়াচ্ছে না।
তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছেন ল্যাবএইড সিলেট শাখা ম্যানেজার আমিনুল ইসলাম। তিনি জানান, আমরা কাউকে চাকরিচ্যুত করছি না। আমাদের এই ডায়াগনস্টিক সেন্টারটি ডাক্তারনির্ভর। প্রায় দুই মাস ধরে ডাক্তাররা এখানে চেম্বার করছেন না। তাই কিছু কর্মচারীকে আপাতত ছুটিতে রাখা হয়েছে।
বেতন-ভাতার বিষয়ে ম্যানেজার জানান, দুই মাস নয়, এক মাসের বেতন বকেয়া। মার্চ মাসের বেতন দেয়া হয়েছে, শুধু এপ্রিল মাস বাকি। এই মাসের বেতন এবং ঈদ বোনাসের তালিকা করে কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। দুই-একদিনের মধ্যেই আশা করছি সবাইকে বেতন-বোনাস প্রদান করা হবে।

  •