বিশ্বনাথে আরো ২ পুলিশ করোনা পজেটিভ, মোট আক্রান্ত ১০

10

বিশ্বনাথ অফিস

সিলেটের বিশ্বনাথ থানায় করোনার থাবার আক্রান্ত হয়েছেন আরো দুই পুলিশ সদস্য। এনিয়ে করোনা পজেটিভ হওয়া পুলিশের সংখ্যা দাঁড়াল ৬ জনে, আর পুরো উপজেলায় করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১০ জনে। বিশ্বনাথে করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন থানার এসআই অলক দাশ ও কনস্টেবল আবুল কালাম।

গত ১১মে ১৩ জন সদস্যে শরীরের নমুনা করোনা পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করা হয়েছিল। শনিবার (১৬ মে) রাতে প্রাপ্ত রিপোর্ট থেকে জানা গেছে ১৩ জনের মধ্যে ২ জনের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে।
এরপূর্বে গত ১০মে থানা পুলিশের আরো ৮ সদস্য শরীরের নমুনা করোনা পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করে ছিলেন। ১৩মে প্রাপ্ত রিপোর্টে ওই ৮ জনের মধ্যে ২ জন এসআই ও ২ জন এএসআই’সহ ৪ জন করোনা পজেটিভ হন। তারা হলেন ফজলুল হক, সবুজ মিয়া, এএসআই হেলাল আহমদ, জাহাঙ্গীর আলম।
জানা গেছে, নমুনা টেস্টের রিপোর্ট আসার ভিত্তিতে গত ৩ মে বিশ্বনাথের প্রথম করোনা রোগী হিসেবে সনাক্ত হন উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের ঘুড়াইল গ্রামের সুমন মালাকারের স্ত্রী শান্তি রাণী মালাকার (২০), ৮মে দ্বিতীয় করোনা রোগী হিসেবে সনাক্ত হন একই ইউনিয়নের বৈরাগীবাজারের পল্লীচিকিৎসক সুকুমার দাশের নাতনী শ্রাবন্তী রাণী দাশ (১০)। এরপূর্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২৮ এপ্রিল মৃত্যুবরণ করেন সুকুমার দাশের পুত্র সবুজ দাশ, ১০মে তৃতীয় করোনা রোগী হিসেবে সনাক্ত হন রামপাশা ইউনিয়নের কাদিপুরস্থ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আবদুর রহমান মুসা এবং ১৩মে ৪ পুলিশ সদস্যের সাথে সাথে করোনা পজেটিভ হন উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী সঞ্জিত চন্দ্র সরকার। শনিবারের রিপোর্ট আসার পর উপজেলায় করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১০ জনে।
করোনা নতুন করে আরো ২ পুলিশ সদস্য পজেটিভ হওয়ার সত্যতা স্বীকার করেছেন বিশ্বনাথ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রমা প্রসাদ চক্রবর্তী। তিনি জানান, এ নিয়ে বিশ্বনাথ থানায় করোনায় আক্রান্ত পুলিশের সংখ্যা দাঁড়াল ৬ জনে।

  •