সিলেটে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর মিছিল, একদিনে শনাক্ত ৬৭ জন

89

স্টাফ রিপোর্টার

সিলেটে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর মিছিল। এক দিনে করোনা আক্রান্ত হয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার একদিনে পুরো বিভাগে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬৭ জনের। এরমধ্যে সিলেট জেলার ১৩ জন, হবিগঞ্জের ২৫ জন, মৌলভীবাজারের ২২ জন ও সুনামগঞ্জের ৭ জন রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং ঢাকার ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় এই ৬৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

সবমিলিয়ে সিলেট বিভাগে এ পর্যন্ত ৫৬৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ওসমানীর পিসিআর ল্যাবে মোট ১৭৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে ১৩টি পজেটিভ আসে।

শনাক্ত হওয়ারা সিলেট নগরী, সদর উপজেলা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বিশ্বনাথ উপজেলার বাসিন্দা। এনিয়ে সিলেট জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হলো ২৩৮ জনের।

এদিকে, ঢাকার ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় বৃহস্পতিবার হবিগঞ্জের ২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে চুনারুঘাট ১৪ জন, সদর উপজেলায় ১ জন, লাখাইয়ে ১ জন, নবীগঞ্জে ৩ জন, বাহুবলে ২ জন, মাধবপুরের ১ জন, আজমিরীগঞ্জের ২ জন ও বানিয়াচংয়ের একজন রয়েছেন।

এদের মধ্যে স্বাস্থ্যকর্মীসহ সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারী রয়েছেন ৯ জন। এনিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত হলেন ১৫৬ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৬৫ জন ও মারা গেছেন ১ জন।
বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার ঢাকার পিসিআর ল্যাব নমুনা পরীক্ষায় মৌলভীবাজারের নতুন ২২ জন ও পুরাতন ৫ জনসহ সর্বমোট ২৭ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, শনাক্তদের মধ্যে বড়লেখায় ৩ জন চিকিৎসক, জুড়ীতে ৩ জন নার্স এবং মৌলভীবাজার সদরের একজন স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন। জেলায় নতুন করে শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে কমলগঞ্জ উপজেলারই ১০ জন। আক্রান্তদের মধ্যে সাংবাদিক, শিক্ষক, হাসপাতালের ওয়ার্ডবয়, শিশু, নারী ও রিকশা চালক রয়েছেন। এরমধ্যে আক্রান্ত এক সেবিকা ও স্টোর কিপারের পরিবারের লোকজনও আছেন।

এ নিয়ে মৌলভীবাজার আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮৩ জনে।

এছাড়া বৃহস্পতিবার ঢাকার পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় সুনামগঞ্জের ৬ জনের ও শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে পরীক্ষায় একজনের করোনা শনাক্ত হয়। এদেমর মধ্যে সুনামগঞ্জ পুলিশ লাইনসের দুইজন পুলিশ সদস্য, তাহিরপুর উপজেলায় ৩জন ও ছাতক উপজেলায় ২ জন রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯০ জনে।

গত ৭ এপ্রিল থেকে ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষা শুরু হয়। আর শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে শুরু হয় ২০ মে থেকে। এছাড়া সিলেট বিভাগের বিভিন্ন উপজেলা থেকে সংগ্রহিত নমুনা অধিক হয়ে গেলে পরীক্ষার জন্য ঢাকার বিভিন্ন ল্যাবেও পাঠানো হয়।

এদিকে

সিলেট জেলায় এক দিনে করোনা আক্রান্ত তিন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাতে বিভিন্ন সময়ে তাঁদের মৃত্যু হয়। বৃহস্পতিবার তাদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাত একটার দিকে শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একজনের (৫৫) মৃত্যু হয়। তাঁর বাড়ি জেলার বিয়ানীবাজার উপজেলার মাটিজুরা টুকা গ্রামে। তিনি গোলাপগঞ্জ উপজেলার আছিরগঞ্জ বাজারে পল্লি চিকিৎসক হিসেবে কাজ করতেন।

এ ছাড়া বুধবার রাতে বালাগঞ্জ উপজেলার নিজ বাড়িতে ৪৬ বছর বয়সী এক পুরুষ এবং সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক পুরুষ (৫৫) মারা যান।
বিজ্ঞাপন

এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আনিসুর রহমান জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাঁদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। সব মিলিয়ে এখন সিলেট বিভাগের ৪ জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৮ জন, মৌলভীবাজারে ২ জন ও হবিগঞ্জে ১ জন মারা গেছেন। তবে সুনামগঞ্জ জেলায় কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি।

  •