জামালগঞ্জে ১২ঘন্টায় সুরমার পানি কমেছে ১৬ সে. মিটার

11

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি::
ভারতের মেঘালয়ে ভারী বর্ষণে সৃষ্ট পাহাড়ি ঢল ও ভারী বর্ষনের কারনে ৩য় দফা বন্যার সৃষ্টি হয়েছিলো। যার ফলে আবারো দূর্ভোগের কবলে পরে ছিলো হাওরাঞ্চলের মানুষ। রাস্তাঘাট, স্কুল কলেজ, ঘর-বাড়িসহ সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্টানে পানি ঢুকলেও আপাতত বৃষ্টিপাত না থাকায় পানিসহ নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করেছে। এতে করে কিছু কিছু অংশের রাস্তা-ঘাট ও বাড়ি ঘরে পানি নামতে শুরু করেছে।

এদিকে জেলার জামালগঞ্জে গত ১২ ঘন্টায় পানি কমেছে ১৬ সে.মিটার। তবে এখনও পানি বিপদসীমায় অবস্থান করছে। সুরমার পানি সকাল ৯টায় সুনামগঞ্জ পয়েন্টে বিপৎসীমার ৭.৮০ সে.মিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বৃহস্পতিবার ৬টায় সুরমার পানি ছিলো বিপৎসীমার ১৬ সে.মিটার উপরে। তাছাড়া রাতে ও দিনে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় পানিও বাড়ছেনা বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ^জিত দেব যুগান্তরকে বলেন, আপাতত সুরমার পানি বাড়ছেনা। কমতে শুরু করেছে তবে যারা এ মূহুর্তে আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছে তাতের বাড়ি-ঘর থাকার উপযোগী না হওয়া পর্যন্ত সে সকর পরিবার আশ্রয়কেন্দ্রে থাকবে প্রশাসনেসর পক্ষ থেকে তাদের সকল সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সাবিবুর রহমান জানান  বৃহস্পতিবার থেকে রাত ও দিনে কোন বৃষ্টিপাত না হওয়ায় সুরমা নদীর পানি বাড়েনি। এতে পানি কমেছে। তবে এষনও পানি বিপৎসীমায় আছে।
বি.দ্র ছবি-ক্যপশন-সুরমা পানি কমতে শুরু করায় লোকজন সাচনা বাজারে চলাচল করছে।

  •