গোলাপগঞ্জে ক‌লেজের ঢালাইয়ে নিম্নমানের বালু ও পাথর ব্যবহার

14

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি

গোলাপগঞ্জের আমুড়া ইউনিয়নের ধারাবহরে নির্মানাধিন টেক‌নিক‌্যাল কলেজের ছাদ ঢালাইয়ে নিম্ন মানের পাথর ও বালু ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার সকালে এ নিয়ে এলাকাবাসীর তোপের মুখে কাজ বন্ধ করতে বাধ্য হয় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর ২২ কোটি টাকা ব্যয়ে গোলাপগঞ্জ উপজেলার ধারাবহর গ্রামে সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের পাঁচতলা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এই ভবনের নির্মাণ কাজ পায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এম আহমেদ ট্রেডার্স।

সোমবার সকালে এই প্রতিষ্ঠানটি একটি ভবনের প্রথম তলার ঢালাই কাজে নিম্ন মানের পাথর না ধুয়েই লাগালে এলাকাবাসীর তোপের মুখে তারা কাজটি বন্ধ করতে বাধ্য হয়। এছাড়াও নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত বালুর বেশির ভাগই পলিমাটি মিশ্রিত এবং পাথর লালচে রঙের। এ ঘটনাটি এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী অফিসারকেও মৌখিকভাবে অবগত করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা নজরুল ইসলাম ও শরফ উদ্দিন জানান, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান খুব নিম্ন মানের বালু ও পাথর দিয়ে কলেজের ঢালাই কাজ করতে চাইলে আমরা এলাকাবাসী বাধা দেই। সিলেট এমনিতেই ভূমিকম্প প্রবন এলাকা। আর এই এলাকায় এমন নিম্ন মানের কাজ হলে ভবিষ্যতে অনেক দূর্ঘটনা ঘটবে। কোন সরকারী কর্মকর্তা কাজের মান তদারকি করছেনা বলেও অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এম আহমেদ ট্রেডার্সের পরিচালক মারুফ আহমদ না ধুয়ে পাথর ব্যবহার করার কথা স্বীকার করলেও পাথর-বালু নিম্ন মানের বিষয়টি অস্বীকার করেন।
নির্বাহী অফিসার মামুনুর রহমান জানান, বিষয়টি অবগত হয়ে আমি শিক্ষা অধিদপ্তর সিলেট জোনের নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবগত করেছি।

এব্যাপারে শিক্ষা অধিদপ্তর সিলেট জোনের নির্বাহী প্রকৌশলী নজরুল হাকিমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি মিটিং এ আছেন বলে কল কেটে দেন।

  •