পাঠাও’র সহ প্রতিষ্ঠাতা ফাহিম সালেহ এর নির্মম হত্যাকাণ্ডের ন্যায় বিচারের দাবিতে নিউইয়র্কে মানববন্ধন

11

কামরুজ্জামান হেলাল,
যুক্তরাষ্ট্র:

বাংলাদেশের পাঠাও’র সহ প্রতিষ্ঠাতা, মেধাবী, তরুন উদ্যোক্তা ফাহিম সালেহ এর নির্মম হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু ও ন্যায় বিচারের দাবিতে নিউইয়র্কে জ্যাকসন হাইট্সের প্রাণকেন্দ্র ডাইভারসিটি প্লাজায় প্রতিবাদ ও মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
বাংলাদেশ স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন অব নিউইয়র্কের উদ্যোগে ও প্রবাসের সর্ববৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ সোসাইটি ও মূলধারার সংগঠন বাংলাদেশী আমেরিকান সোসাইটি সহ প্রায় ২০ টি সামাজিক, সাংকৃতিক ও ব্যবসায়ীক সংগঠনের আহবানে গত শনিবার বিকেলে ডাইভার্সিটি প্লাজায় এই প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়। পৃথিবীব্যাপি মহামারি কোভিড -১৯ পেন্ডামিক ও প্রচন্ড গরমকে উপেক্ষা করে কমিউনিটির সচেতন নাগরিকগন প্রতিবাদ সভায় অংশগ্রহন করেন। প্রতিবাদ সভার মূল বক্তব্য পাঠ করেন তরুন উদ্যোক্তা ও ইঞ্জিনিয়ার সায়েম শাহরিয়ার। ফাহিম সালেহ’র খুনিকে ফাষ্ট ডিগ্রি মার্ডারে অন্তভূক্তের দাবি জানিয়ে বক্তব্য রাখা হয়। এছাড়া ব্রুকলিন বরো প্রেসিডেন্ট এরিক এডামস এই প্রতিবাদ সভায় অংশগ্রহন করে তার মূল্যবান বক্তব্য প্রদান করনে। তিনি বলেন আমি আপনাদের এই দাবীর প্রতি পূর্ন সমর্থন জানাচ্ছি। ফাহিম সালেহ অত্যন্ত মেধাবী একজন মানুষ। তাকে যেভাবে ঠান্ডা মাথায় হত্যা করা হয়েছে, এই সভ্য সমাজে তা মেনে নেয়া যায় না। আইনের ফাঁক ফোকর দিয়ে যাতে অপরাধী পার পেয়ে না যায়, এই ব্যাপারে সকলের সজাগ থাকতে হবে। খুনি যে বর্ণের হোক, সে খুনি, সে অপরাধী। আমার পক্ষে যা করা দরকার, আমি সেটা করবো এ সময় উপস্থিত সকলেই সঠিক বিচারের দাবিতে মূহমূহ স্লোগান দেন।

প্রতিবাদ সভার প্রধান আয়োজক ও আহ্ববায়ক বাংলাদেশ স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন অব নিউইয়র্কের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি এবং ইউনাইটেড স্টেটস সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা শেখ আল আমিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন এসেম্বলী মেম্বার প্রার্থী মেরী জোবাইদা, বাংলাদেশ মুক্তিযাদ্ধা সংসদের কমান্ডার আব্দুল মুকিত চৌধুরী ,বাংলাদেশ সোসাইটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রহিম হাওলাদার, বাংলাদেশী আমেরিকান সোসাইটির সভাপতি ও বাংলাদেশ সোসাইটির কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী , বাংলাদেশী আমেরিকান সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ও কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার আমীন মেহেদী বাবু, হিস্পানিক ও ল্যাটিনো কমিউনিটি এক্টিভিস্ট ক্রিস্টোফার এসপিনোজা, মুসলিম এন্ট্রাপ্রেনিউর এসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল রহমান, ট্রান্সফোটেক একাডেমী সি.ই.ও. শেখ গালিব রহমান, নিউ আমেরিকান ইয়ুথ ফোরামের সভাপতি আহনাফ আলম, এনওয়াইপিডি অক্সিলিয়ারি অফিসার ও বৃহত্তর খুলনা সমিতির উপদেষ্টা সৈয়দ এনায়েত আলী, ঢাকা আবাহনী লিমিটেড এর সাবেক ম্যানেজার এবং বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিল অফ আমেরিকার সহ-সভাপতি ওয়াহিদ কাজী এলিন, পদ্মা ইয়েলো সোসাইটি ইউএসএ’র সভাপতি শেখ মোহাম্মদ ফারুকুল ইসলাম, জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশ বিজনেস এসোসিয়েশন সংস্কৃতি ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক শেখ হাসান আলী, বৃহত্তর খুলনা সমিতির সহ-সভাপতি শেখ নওশাদ আখ্তার, মেম্বার সেক্রেটারি শেখ সেকেন্দার আলী, বিল্ডিং আওয়ার মুভমেন্ট আহবায়ক ফাহাদ সোলাইমান, নবাবগন্জ ফাউন্ডেশনের সাধারন সম্পাদক মিলন মোল্লা , ঢাকা জেলা এসোসিয়েসনের সাবেক সভাপতি বদরুল ইসলাম খান বাদল , গুলশান এসোসিয়েসনের সহ-সভাপতি সাইদ ইদ্রীস, আবু হুরায়রা মসজিদের সাধারণ সম্পাদক নবী হোসেন নবীন, শিল্পকলা একাডেমির সভানেত্রী ও বাংলাদেশ সোসাইটির সাংকৃতিক সম্পাদক মনিকা রায় চৌধুরী, মূলধারা ও নিউ ইয়র্ক ট্যাক্সি ওয়ার্কার্স এলায়েন্সর নেতা মোহাম্মদ টিপু সুলতান, সাংবাদিক ও কমিউনিটি এক্টিভিস্ট রিমন ইসলাম ।
বক্তাগণ ফাহিম সালেহর নির্মম, বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানান , তার হত্যাকে একটি পরিকল্পিত হত্যা বলে সকলেই দাবী করেন । হত্যাকারী কে একজন ঠান্ডামাথার খুনি বলে তার বিরুদ্ধে ১ম ডিগ্রী চার্জ আনার জোরালো দাবী জানিয়ে অতি শীঘ্রই একটি মেমোরেন্ডাম নির্বাচিত অফিসিয়ালদের নিকট প্রেরণ করা হবে। হত্যাকে অন্যদিকে প্রবাহিত করার চেস্টা না করার জন্য বিচার বিভাগের প্রতি অনুরোধ জানানো হয় ।প্রতিবাদ শেষে ফাহিম সালের আত্তার মাগফেরাত কামনা করে জ্যাকসন হাইটস ইসলামিক সেন্টারের খতিব ও ইমাম দোয়া করেন । অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতা করেন বাংলাদেশী আমেরিকান সোসাইটির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও কুবা মসজিদের সভাপতি সেলিম খান, সহ-সভাপতি আমিন রহমান রুবেল, কার্যকরী সদস্য ফয়েজ উল্লা, বিক্রমপুর মুন্সিগন্জ সমিতির প্রধান উপদেষ্টা নাজমুল আলম স্যামল, মোস্তফা আহমেদ, শিল্পকলা একাডেমির কর্মকর্তাবৃন্দ সহ নতুন প্রজম্মের সোসাল এক্টিভিস্ট রাইহান মেহেদী, নামিরা মেহেদী , সাজিদ মিলন অমি, মাহমুদুল, মুরাদ, ও প্রমুখ । পরিশেষে এন ওয়াই পি ডি কমিউনিটি অ্যাফেয়ার্স এর সদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়ে মানব বন্ধন এর সমাপ্তি গোষণা করেন আয়োজকবৃন্দ।

  •