বাংলাদেশি প্রার্থীদের অংশ গ্রহনে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যে গত ৪ আগস্ট শেষ হলো প্রাইমারি নির্বাচন ২০২০

21

কামরুজ্জামান হেলাল,
যুক্তরাষ্ট্র:

নির্বাচনে বরাবরের মতো ভোটার উপস্থিতির সংখ্যা বেশী থাকলেও করোনাভাইরাসের কারনে এবারে ভোট উৎসবমুখর পরিবেশ ছিলো না। এই নির্বাচনে ৪ জন বাংলাদেশি-আমেরিকান প্রার্থী বিভিন্ন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন বাংলাদেশি প্রার্থীরা সবাই ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করে, তাছাড়া একই পদে একাধিক বাংলাদেশি প্রার্থী না থাকায় ভোট ভাগাভাগি হওয়ার সম্ভাবনা ও ছিল না।এ নির্বাচনে মিশিগান অঙ্গরাজ্যের হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভ পদে নির্বাচনে ডিস্ট্রিক্ট-৪ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন বাংলাদেশি আমেরিকান সাহাব আহমেদ (সুমিন), ওয়েইন কাউন্টি ডিস্ট্রিক্ট-৩ থেকে কমিশনার পদে প্রার্থী পদে নির্বাচন করেছেন বাংলাদেশি-আমেরিকান মোহাম্মদ কামরুল হাসান, ওয়ারেন সিটির ওয়ারেন ম্যাকম্ব ডেলিগেট পদে প্রার্থী পদে নির্বাচন করেছেন বাংলাদেশি-আমেরিকান খাজা শাহাব আহমদ ম্যাকম্ব-কাউন্টির-কাউন্টি ডেলিগ্যাট পদে এবং হ্যামট্রামাক সিটির ৫ নম্বর প্রিসিঙ্কটের ডেলিগেট হিসেবে নির্বাচন করেন বাংলাদেশি-আমেরিকান মিনহাজ রাসেল চৌধুরী।

চার জন বাংলাদেশি প্রার্থীর মধ্যে ডেলিগেট পদ প্রার্থী নির্বাচনে জয় পেয়েছেন দুজন আমেরিকান বাংলাদেশি। তাদের মধ্যে একজন হলেন ওয়ারেন সিটির ওয়ারেন ম্যাকম্ব ডেলিগেট পদ প্রার্থী বাংলাদেশি-আমেরিকান খাজা শাহাব আহমদ ডেলিগেট পদে বিজয়ী হোন তিনি বলেন এই বিজয় সকল বাংলাদেশিদের বিজয়।
আরেকজন প্রার্থী হ্যামট্ররমিক সিটির ৫ নম্বর প্রিসিঙ্কটের ডেলিগেট পদ প্রার্থী বাংলাদেশি-আমেরিকান মিনহাজ রাসেল চৌধুরী বিজয়ী হোন তিনি বলেন কমিউনিটির সকলকে নিয়ে তিনি কাজ করতে চান।

হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভ পদে ডিস্ট্রিক্ট ৪ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন বাংলাদেশি-আমেরিকান সাহাব আহমেদ ডেমোক্রেটিক পার্টির ১১ জন প্রার্থী এই পদে লড়ছিলেন এবং তিনি পরাজিত হোন।এছাড়া ওয়েইন কাউন্টি ডিস্ট্রিক্ট-৩ থেকে কমিশনার পদে প্রার্থী পদে নির্বাচন করেছিলেন বাংলাদেশি-আমেরিকান মোহাম্মদ কামরুল হাসান ডেমোক্রেটিক পার্টির ২ জন প্রার্থী এই পদে লড়ছিলেন।কামরুল হাসান মোট ৩৪৮১ ভোট পেয়ে পরাজয় বরণ করেন।

  •