অধ্যাপক ফয়েজ আহমদ বাবর আর নেই

12

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি

জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ আহমদ বাবর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা ল্যাব এইড হাসপাতালে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০ টায় তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫১ বছর।

তার মৃত্যুর তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ফয়েজ আহমদ বাবরের সঙ্গে থাকা জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হানিফ মোহাম্মদ।

জানা গেছে, ফয়েজ আহমদ বাবর ঈদের পরদিন রোববার কানাইঘাট বাজারে সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে জৈন্তাপুরের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়। পরবর্তীতে জৈন্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়েও চিকিৎসা নেন। সোমবার সকালে বুকে ব্যথা নিয়ে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে চিকিৎসকরা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানান। পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য সোমবার সন্ধ্যায় ফয়েজ আহমদ বাবরকে সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ইকবাল আহমদের তত্ত্বাবধানে ভর্তি করা হয়। রাতে অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে সিলেট নগরীর নুরজাহান হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) বেলা ২টার দিকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে যোগে তাকে ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি মা, স্ত্রী ও দুই শিশু পুত্রসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

ফয়েজ আহমদ বাবর, শিক্ষা জীবন শেষ করে জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রি কলেজে প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন। ১৯৯৮ সাল থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি উক্ত কলেজে কর্মরত ছিলেন। প্রভাষক হিসেবে যোগদান করলেও তিনি ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ (খণ্ডকালীন) ও সর্বশেষ সহকারী অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী ডিগ্রি কলেজের প্রতিষ্ঠাকালীন শিক্ষক হিসেবে কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মোহাম্মদ রশিদ হেলালীর অন্যতম সহযোদ্ধা ছিলেন। দীর্ঘ কর্মজীবনে তিনি কলেজের গভর্নিং বডির সদস্যসহ অনেকগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেন। শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত ছিলেন। ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনৈতিক পদচারণা শুরু হলেও জৈন্তাপুর উপজেলা যুবলীগ ও পরবর্তীতে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (বাকবিশিস) এর কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক ও সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল আহমদ জানান, পারিবারিক সিদ্ধান্ত মোতাবেক মরহুমের জানাজার নামাজ শুক্রবার বাদ আছর জৈন্তাপুর উপজেলার সারিঘাট (উত্তর পার) ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হবে। পরে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হবে।