কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে কয়েদি পালানোর ঘটনায় প্রধান ৬ জন বরখাস্ত

16

সবুজ সিলেট ডেস্ক::
কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে আবু বক্কর সিদ্দিক নামে যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত এক আসামি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় প্রধান কারারক্ষীসহ ছয় জনকে সাময়িক বরখাস্ত এবং ছয় জনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করেছে কারা অধিদফতর। কারা অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় উপমহাপরিদর্শক তৌহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) কাশিমপুর-২ কারাগার থেকে কয়েদি আবু বকর সিদ্দিক হঠাৎ নিখোঁজ হয়ে যায়। সন্ধ্যায় কয়েদিদের লকআপে তোলার সময় বিষয়টি টের পেয়ে পুরো জেলখানায় তল­াশি চালানো হয়। তবে কোথাও তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। কারা কর্তৃপক্ষের ধারণা, কারাগারের দেয়াল টপকিয়ে সে পালিয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার কারাগারের দেয়ালে রঙ করার জন্য মই ছিল বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে।
কারা কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। ওই কমিটি পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখবে।
এদিকে, কয়েদি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় জেল কর্তৃপক্ষ থানায় একটি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। একইসঙ্গে ওই কয়েদির গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরায় হওয়ায় সেখানকার পুলিশ সুপারকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এছাড়া জেল কর্তৃপক্ষ, সাতক্ষীরায় একটি টিম পাঠানো হয়েছে।
জেল সূত্র জানায়, যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি আবু বকর সিদ্দিকের বাড়ি সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার আবাদ চণ্ডীপুরে। এর আগে ২০১৫ সালের ১৩ মে সন্ধ্যায় আবু বক্কর সিদ্দিক কারাগারের ভেতরে একটি সেপটিক ট্যাংকের ভেতরে লুকিয়ে ছিল। একদিন পর তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে।