জকিগঞ্জ – সিলেট সড়কে গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি লংঘন করে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়

18

জকিগঞ্জ, প্রতিনিধি ::
সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কে গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা অতিরিক্ত যাত্রী বহন করে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এ নিয়ে যাত্রীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। প্রতিদিনই এ নিয়ে যাত্রী ও বাস কর্তৃপক্ষের মাঝে বাকবিতন্ডা হচ্ছে।

বিষয়টিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে সাংবাদিকদের উপস্থিতে জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিজন কুমার সিংহ বরাবর রবিবার স্মারকলিপি প্রদান করে মানব সেবা ফাউন্ডেশন জকিগঞ্জ। এতে উল্লেখ করা হয় করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধির প্রতি ভ্রুক্ষেপ না করে প্রতিটি আসনেই যাত্রী বসানো হয় জকিগঞ্জ-সিলেট সড়কের বাসগুলিতে। অতিরিক্ত ৬০% ভাড়াও নেয়া হচ্ছে যাত্রীদের কাছ থেকে। যাত্রীদের কেউ এর প্রতিবাদ করলেও সদোত্তর পাওয়া যায় না।

মানবসেবা ফাউন্ডেশন জকিগঞ্জ এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য তানভীর আল হাসান, শাহিন চৌধুরী, তামজিদুল ইসলাম, আব্দুল ওয়াহিদ, মিজান চৌধুরী, মোস্তফা আহমেদ পাবেল, হাবিবুর রহমান মাশরুর, রুবেল, পারভেজ, জাফরান, ফরহাদ প্রমূখ জানান, সিলেট থেকে জকিগঞ্জ হচ্ছে সিলেটের সবচেয়ে দূরবর্তী উপজেলা।

প্রতিদিন জকিগঞ্জ-সিলেটে ৫০-৬০টি যাত্রীবাহী বাস যাতায়াত করে থাকে। প্রতিদিন দুই হাজারেরও বেশি যাত্রী দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন এবং স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন। বাসের হেলপার, কন্ডাক্টর ও চালক কেউই ঠিকমতো মাস্কও ব্যবহার করেন না।
জকিগঞ্জ যাত্রী কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এমএ রশিদ বলেন, অামরা মনে হয় মগের মুল্লুকে বাস করছি। সরকারি নির্দেশনার প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখাচ্ছে স্থানীয় পরিবহন কর্তৃপক্ষ। অবশ্যই এর প্রতিকার দরকার।

এ ব্যাপারে বাস মালিক সমিতির ম্যানেজার ও পৌ কাউন্সিলর দেলোয়ার হোসেন নজরুল বলেন, আমরা স্টেশন থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই গাড়ি ছাড়ি। রাস্তায় কেউ অনিয়ম করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজন কুমার সিংহ বলেন, স্মারকলিপি গ্রহণের পরপরই সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে ফোনালাপে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে এবং যাত্রী হয়রানি বন্ধ করতে সতর্ক করা হয়েছ, প্রয়োজনে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  •