কোন বয়সের বাচ্চাদের মাস্ক জরুরি

8

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: 
বেড়েই চলেছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ। করোনা থেকে বাঁচতে মাস্ক পরার প্রতি সবচেয়ে জোর দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। কিন্তু প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রে যা দরকার, সেটাই কি প্রয়োজন শিশুদের ক্ষেত্রেও? এই প্রশ্নের জবাব দিয়ে বিস্তারিত জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

সংস্থার ওয়েবসাইটে স্পষ্ট ভাষায় জানানো হয়েছে, সব বয়সের শিশুদের জন্য সমান নয়, বয়সভেদে এই নির্দেশিকায় বদল রয়েছে। যেমন, যাদের বয়স ১২ বছর বা তার বেশি, তাদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। কারণ, এই বয়সের শিশুরা সাধারণত স্কুলে যায়। অনেকটা সময় নিজেদের বয়সী অন্য শিশুদের সঙ্গে তারা কাটায়। তাই তাদের পক্ষে সবসময় এক মিটার দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব নয়। অর্থাৎ মাস্ক না পরলে তাদের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই তাদের উচিত মাস্ক পরা।

এই নির্দেশিকায় আরও জানানো হয়েছে, ৬ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের ক্ষেত্রে মাস্ক পরতে হবে কি না, তা নির্ভর করছে পারিপার্শ্বিক অবস্থার উপর। অর্থাৎ যেখানে সে রয়েছে সেখানে কী ধরনের সংক্রমণ রয়েছে, শিশুটি মাস্ক কতটা ব্যবহার করতে পারে, তার মাস্ক ব্যবহার করার দিকে বড়দের নজর রয়েছে কি না, এই সব বিষয়ের উপর নির্ভর করে এই বয়সের শিশুদের মাস্ক পরা উচিত।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, ৫ বছরের কম বয়সের শিশুদের ক্ষেত্রে মাস্ক পরার কোনো প্রয়োজন নেই। শিশুর সুরক্ষা ও স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই এই নির্দেশিকা জারি হয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

ইউনিসেফ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, করোনা সংক্রমণে শিশুদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকে। কিন্তু ঠিক কী পরিমাণে সংক্রমণ তারা ছড়ায় কিংবা এই সংক্রমণের ঝুঁকি কতটা তা জানার জন্য আরও তথ্য প্রয়োজন বলে তারা জানিয়েছে।

গত ৫ জুন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে সবাইকে মাস্ক পরার নির্দেশিকা জারি করা হয়। তার আগে এই সংস্থা জানিয়েছিল, শুধুমাত্র যারা আক্রান্ত তারাই মাস্ক পরবেন। বাকিদের মাস্ক পরার দরকার নেই। কিন্তু পরে সেই নির্দেশিকা বদল করে সবাইকে মাস্ক পরার নির্দেশ দেওয়া হয়। এবার শিশুদের ক্ষেত্রেও নতুন নির্দেশিকা জারি করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

  •